মঙ্গলবার,

০৪ অক্টোবর ২০২২,

১৯ আশ্বিন ১৪২৯

মঙ্গলবার,

০৪ অক্টোবর ২০২২,

১৯ আশ্বিন ১৪২৯

Radio Today News

প্রধানমন্ত্রীর উদারতার অর্থ বোঝে না বিএনপি: কাদের

রেডিওটুডে রিপোর্ট

প্রকাশিত: ১৮:৩৬, ১৬ আগস্ট ২০২২

প্রধানমন্ত্রীর উদারতার অর্থ বোঝে না বিএনপি: কাদের

প্রধানমন্ত্রীর উদারতার অর্থ বিএনপি বোঝে না বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

তিনি বলেন, আমাদের নেত্রী বলেছেন, তারা সমাবেশ করুক, জনসভা করুক বাধা আমরা কোনো বাধা দেবো না। নেত্রী আপনার এ উদারতার অর্থ আমরা বুঝি। কিন্তু তারা তো সেটা বোঝে না। তারা বলে, বিদেশিদের চাপে আপনি এটা করছেন।

মঙ্গলবার (১৬ আগস্ট) বিকেলে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে জাতীয় শোক দিবসের স্মরণ সভায় সূচনা বক্তব্যে এসব কথা বলেন তিনি। বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ এ স্মরণ সভার আয়োজন করে।

ওবায়দুল কাদের বলেন, লন্ডন থেকে স্লোগান দেয় আর স্লোগানের প্রতিধ্বনি হয় পল্টনে। কী স্লোগান? টেক ব্যাক বাংলাদেশ। টেক ব্যাক করে কোথায় যাবে? লুটপাটের হওয়া ভবনের বাংলাদেশ। পাঁচবার বিশ্ব চ্যাম্পিয়নের বাংলাদেশ?

তিনি বলেন, টেক ব্যাক করে কোথায় যাবে? মুক্তিযুদ্ধের মূল্যবোধ বিসর্জনের বাংলাদেশ। সেই বাংলাদেশ কী আমরা চাই? এই বাংলাদেশ তারা (বিএনপি) চায় না। তোমরা এ কথা বলছো আর নিউ ইয়র্ক টাইমস কী বলছে? নিউ ইয়র্ক টাইমস বলছে, লুক টু বাংলাদেশ, লুক টু শেখ হাসিনা। আর তারা বলছে, টেক ব্যাক বাংলাদেশ। বলুক।

বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে উল্লেখ করে ওবায়দুল কাদের বলেন, এখনো বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে। এখনো রেমিট্যান্স আছে হাজার হাজার কোটি টাকা। এখনো ৪০ থেকে ৪২ এ আমাদের রিজার্ভ। বললাম কেন? বাংলাদেশে এখন রিকশাচালকেরাও রিজার্ভের কথা বলে। শ্রীলঙ্কার রিজার্ভ ফুরিয়ে গেছে। পাকিস্তানের রিজার্ভ তলানিতে। এ জন্য বাংলাদেশকে নিয়েও তারা দুঃস্বপ্ন দেখে।

মানুষের কান কথায় বিভ্রান্ত না হওয়ার আহ্বান জানিয়ে নেতাকর্মীদের উদ্দেশে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, মানুষের কান কথা শুনে, গুজব শুনে কেউ বিভ্রান্ত হবেন না। বাংলাদেশ শ্রীলঙ্কাও হবে না, পাকিস্তানও হবে না। এটা বঙ্গবন্ধুর বাংলাদেশ। এটা বীরের দেশ। শেখ হাসিনার বাংলাদেশ। সবাই শুধু ঐক্যবদ্ধ থাকুন। দলটাকে সুশৃঙ্খল রাখুন। যেভাবে এগিয়ে চলছে আমরা যদি নেত্রীর নির্দেশনা অনুযায়ী এগিয়ে যেতে পারি আবারও আগামী নির্বাচনে আমরা ইনশা আল্লাহ বিজয়ের বন্দরে পৌঁছাতে পারবো।

আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনাকে উদ্দেশ্যে করে তিনি বলেন, অনেক তথ্য অজানা রয়ে গেছে। অনেকের ভূমিকা অজানা রয়ে গেছে। সত্যের খাতিরে ইতিহাসের এ সব তথ্য উন্মোচন করা দরকার। মাননীয় আইনমন্ত্রী বলেছেন কমিশন গঠন করবেন। শুধু মুখে নয়, আমি বলবো বাস্তবে এর কার্যকারিতা বাংলার মানুষ দেখতে চায়। এ নৃশংস হত্যাকাণ্ডের রহস্যময় আরও পুরুষ আছে। যাদের জাতি চেনে না। কিন্তু চেনা মুখ। সত্য জানা উচিত। সত্যের মুখোমুখি আমরা। সত্য আমাদের জানতে হবে।

ওবায়দুল কাদের বলেন, জিয়াউর রহমান না কী মুক্তিযোদ্ধা। আমার মুক্তিযুদ্ধের রণধ্বনি কেন নিষিদ্ধ হয়? সর্বকালের সেরা ভাষণের একটি আমার বাংলার বঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণ কেন নিষিদ্ধ হয়? বাংলাদেশ বেতার কেন রেডিও বাংলা হয়? মুক্তিযুদ্ধের মূল্যবোধ স্বাধীনতার সব আদর্শ নির্বাসনে পাঠাল কে? ইতিহাস কী তাকে ক্ষমা করবে? ক্ষমা কী করা যায় এই বিশ্বাস ঘাতককে?’

সর্বশেষ

সর্বাধিক সবার কাছের