শনিবার,

৩১ জুলাই ২০২১,

১৬ শ্রাবণ ১৪২৮

পরীক্ষামূলক প্রকাশ

শনিবার,

৩১ জুলাই ২০২১,

১৬ শ্রাবণ ১৪২৮

Radio Today News
শুভ জন্মদিন ববিতা

শুভ জন্মদিন ববিতা

আজ কিংবদন্তি অভিনেত্রী ববিতা’র ৬৮তম জন্মদিন। তার পুরো নাম ফরিদা আক্তার পপি। ১৯৫৩ সালের ৩০ জুলাই বাংলাদেশের বাগেরহাট জেলায় জন্ম গ্রহণ করেন তিনি। ববিতার বাবা নিজামুদ্দীন আতাউব একজন সরকারি কর্মকর্তা ছিলেন এবং মাতা বি জে আরা ছিলেন একজন চিকিৎসক। বাবার চাকরি সূত্রে বাগেরহাটে থাকতেন। তবে তার পৈতৃক বাড়ি যশোর জেলায়। শৈশব এবং কৈশরের প্রথমার্ধ কেটেছে যশোর শহরের সার্কিট হাউজের সামনে। তার একমাত্র ছেলে অনিক থাকেন কানাডার টরেন্টোতে। অনিক ওয়াটার ল্যু ইউনিভার্সিটি থেকে ইলেকট্রিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং-এ শিক্ষা জীবন শেষ করে সেখানেই থিতু হয়েছেন। ববিতার চলচ্চিত্রে শুরুটা হয়েছিল ষাটের দশকের শেষ দিকে। ষষ্ঠ শ্রেণীর শিক্ষার্থী পপি (ববিতার ডাক নাম) ‘সংসার’ ছবিতে রাজ্জাক ও সুচন্দার মেয়ের চরিত্রে অভিনয় করেন। ছবির নির্মাতা ছিলেন বোন জামাই জহির রায়হান। যদিও ছবিটি মুক্তি পায়নি। পরে জহির রায়হান ববিতাকে নিয়ে ‘জ্বলতে সুরুজ কা নিচে’ নামে একটি উর্দু ছবির কাজ শুরু করেন। মাঝপথে থেমে যায় এই ছবিটিরও কাজ। এরপর জহির রায়হান রাজ্জাক ও ববিতাকে নিয়ে তৈরি করেন চলচ্চিত্র ‘শেষ পর্যন্ত’। এটিই ছিল ববিতার প্রথম মুক্তিপ্রাপ্ত চলচ্চিত্র। তারপর থেকেই ঢাকাই ছবিতে এই নক্ষত্রের উত্থান। আজও তিনি আলো ছড়িয়ে যাচ্ছেন অভিনয়ে। সত্যজিৎ রায়ের ‘অশনি সংকেত’ চলচ্চিত্রের মাধ্যমে আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র অঙ্গনে প্রশংসিত হন ববিতা। এ চলচ্চিত্রে ‘অনঙ্গ বউ’ চরিত্রে অভিনয়ের জন্য তিনি বেঙ্গল ফ্লিম জার্নালিস্ট অ্যাসোসিয়েশনের সর্বভারতীয় শ্রেষ্ঠ নায়িকার পুরস্কার পান। প্রায় ৩৫০ টি চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন ববিতা৷ তারমধ্যে অশনি সংকেত, রামের সুমতি, নিশান, টাকা আনা পাই, দিপু নাম্বার টু উল্লেখযোগ্য।

বিনোদন বিভাগের সব খবর  

শুভ জন্মদিন ববিতা
শুভ জন্মদিন ববিতা

আজ কিংবদন্তি অভিনেত্রী ববিতা’র ৬৮তম জন্মদিন। তার পুরো নাম ফরিদা আক্তার পপি। ১৯৫৩ সালের ৩০ জুলাই বাংলাদেশের বাগেরহাট জেলায় জন্ম গ্রহণ করেন তিনি। ববিতার বাবা নিজামুদ্দীন আতাউব একজন সরকারি কর্মকর্তা ছিলেন এবং মাতা বি জে আরা ছিলেন একজন চিকিৎসক। বাবার চাকরি সূত্রে বাগেরহাটে থাকতেন। তবে তার পৈতৃক বাড়ি যশোর জেলায়। শৈশব এবং কৈশরের প্রথমার্ধ কেটেছে যশোর শহরের সার্কিট হাউজের সামনে। তার একমাত্র ছেলে অনিক থাকেন কানাডার টরেন্টোতে। অনিক ওয়াটার ল্যু ইউনিভার্সিটি থেকে ইলেকট্রিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং-এ শিক্ষা জীবন শেষ করে সেখানেই থিতু হয়েছেন। ববিতার চলচ্চিত্রে শুরুটা হয়েছিল ষাটের দশকের শেষ দিকে। ষষ্ঠ শ্রেণীর শিক্ষার্থী পপি (ববিতার ডাক নাম) ‘সংসার’ ছবিতে রাজ্জাক ও সুচন্দার মেয়ের চরিত্রে অভিনয় করেন। ছবির নির্মাতা ছিলেন বোন জামাই জহির রায়হান। যদিও ছবিটি মুক্তি পায়নি। পরে জহির রায়হান ববিতাকে নিয়ে ‘জ্বলতে সুরুজ কা নিচে’ নামে একটি উর্দু ছবির কাজ শুরু করেন। মাঝপথে থেমে যায় এই ছবিটিরও কাজ। এরপর জহির রায়হান রাজ্জাক ও ববিতাকে নিয়ে তৈরি করেন চলচ্চিত্র ‘শেষ পর্যন্ত’। এটিই ছিল ববিতার প্রথম মুক্তিপ্রাপ্ত চলচ্চিত্র। তারপর থেকেই ঢাকাই ছবিতে এই নক্ষত্রের উত্থান। আজও তিনি আলো ছড়িয়ে যাচ্ছেন অভিনয়ে। সত্যজিৎ রায়ের ‘অশনি সংকেত’ চলচ্চিত্রের মাধ্যমে আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র অঙ্গনে প্রশংসিত হন ববিতা। এ চলচ্চিত্রে ‘অনঙ্গ বউ’ চরিত্রে অভিনয়ের জন্য তিনি বেঙ্গল ফ্লিম জার্নালিস্ট অ্যাসোসিয়েশনের সর্বভারতীয় শ্রেষ্ঠ নায়িকার পুরস্কার পান। প্রায় ৩৫০ টি চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন ববিতা৷ তারমধ্যে অশনি সংকেত, রামের সুমতি, নিশান, টাকা আনা পাই, দিপু নাম্বার টু উল্লেখযোগ্য।

শুক্রবার, ৩০ জুলাই ২০২১, ১৫:১০

দীপিকার পাজামা খোলার দৃশ্য দেখতে হয়েছে তার বোনের!
দীপিকার পাজামা খোলার দৃশ্য দেখতে হয়েছে তার বোনের!

দীপিকা পাড়ুকোন ইনস্টাগ্রামে নতুন ভিডিও পোস্ট করলেন। ভিডিও তোলার ভৌতিক কায়দায় মুগ্ধ নেটিজনরা। ভিডিওর সঙ্গে তিনি ভূতের ইমোজিও জুড়ে দেন। মাস কয়েকের বিরতির পর নেটমাধ্যমে ফিরে এসেছেন দীপিকা। তার পর থেকেই তাঁর বিচিত্র ছবি ও ভিডিও ডিজিটাল দুনিয়া মাতাচ্ছে। কিন্তু নেটমাধ্যম বা বড় পর্দায় যে দীপিকাকে দেখতে পাওয়া যায়, তার সঙ্গে ঘরোয়া দীপিকার কোনও মিল নেই। বাড়িতে দীপিকা আর কাজের ক্ষেত্রে দীপিকা— সম্পূর্ণ দুটো আলাদা ব্যক্তি। আর সেই তথ্যই ফাঁস করলেন বলি অভিনেত্রীর বোন অনিশা পাড়ুকোন। বেশ অনেক দিন আগে নেহা ধুপিয়ার চ্যাট শো-তে এসে অনিশা নিজের দিদির সম্পর্কে কথা বলতে গিয়ে একটি শব্দ ব্যবহার করেছিলেন, ‘বিরক্তিকর’। দীপিকার বোন আনিশার কথা, ‘‘এ সব কথা মানুষের জানা উচিত। দীপিকাকে সকলে খুব মার্জিত মনে করেন। কিন্তু বাস্তবে সে একেবারে অন্য রকম।’’ অনিশা তাঁর বক্তব্যকে জোরদার করার জন্য একটি ঘটনার বর্ণনা করলেন। দীপিকা ও অনিশা একই ঘরে ঘুমোতেন। এক দিন সকাল ৭টা নাগাদ দীপিকার অ্যালার্ম বেজে উঠেছে। অনিশা বুঝতে পারলেন, দীপিকা হয়তো জিমে যাবেন এ বার। কিন্তু সেই অ্যালার্মে অনিশারও ঘুম ভেঙে গিয়েছিল। তিনি এ পাশ ও পাশ করছেন বিছানায় শুয়ে। হঠাৎ তিনি দেখতে পেলেন, দীপিকা বিছানা ছেড়ে ওঠার সময়ে তাঁর পাজামা খুলে নীচে পড়ে গেল। অনিশার কথায়, ‘‘সেই সময়ে মানুষ কী করে? পাজামা তুলে নিয়ে পরে নেয়। দীপিকার তখন পাজামার দিকে মন নেই। সে এক বার আমায় দেখল, আমি ঘুম থেকে উঠে গেলাম কিনা।’’ বোন তাঁকে এই অবস্থায় দেখছে কিনা সে সব নিয়ে ভ্রূক্ষেপ নেই দীপিকার। এমনটাই জানিয়েছিলেন অনিশা। অনিশা পেশাদার গলফার। তিনি সম্পূর্ণ ভাবে নিজের বাবা প্রকাশ পাড়ুকোনের পদাঙ্ক অনুসরণ করেছেন। অন্য দিকে প্রকাশের বড় কন্যা দীপিকা খেলার জগতে নিজের পেশা শুরু করলেও পরবর্তীকালে সে সব ছেড়ে মডেলিং ও অভিনয়ে উজ্জ্বল নক্ষত্র হিসেবে আত্মপ্রকাশ করেন।

বৃহস্পতিবার, ২৯ জুলাই ২০২১, ১৪:৫৩

শিল্পা শেঠির স্বামীর বিরুদ্ধে যৌন হেনস্তার অভিযোগ
শিল্পা শেঠির স্বামীর বিরুদ্ধে যৌন হেনস্তার অভিযোগ

শিল্পা শেঠির স্বামী রাজ কুন্দ্র, পর্ন ছবি বানানোর দায়ে গ্রেফতার হয়ে কারাগারে আছেন। তার জামিন স্থগিত করেছে মুম্বাই আদালত। জব্দ করা হয়েছে ব্যাংক একাউন্ট। এবার রাজের বিরুদ্ধে যৌন হেনস্তার অভিযোগ এনেছেন বলিউডের সেক্স সিম্বল অভিনেত্রী শার্লিন চোপড়া। ভারতীয় গণমাধ্যমগুলো এমনটাই দাবি করছে। গণমাধ্যম গুলোর প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ২০২১ সালের এপ্রিল মাসে শার্লিন এফআইআর দায়ের করেছিলেন রাজের বিরুদ্ধে। সেই মামলার তথ্য সম্প্রতি সামনে এল জাতীয় সংবাদ সংস্থার সূত্রে। শুধু তাই নয়, শার্লিনের দাবি, রাজ তাকে বলেছিলেন, শিল্পার সঙ্গে তার সম্পর্ক নাকি ভালো যাচ্ছে না। শার্লিনের সহকারীর সঙ্গে ২০১৯ সালের শুরুর দিকে যোগাযোগ করেন রাজ। তিনি চাইছিলেন, ‘দ্য শার্লিন চোপড়া অ্যাপ’ নামে একটি অ্যাপ তৈরি করবেন। শার্লিনের দাবি, রাজ তাকে বলেছিলেন, সেই অ্যাপে শার্লিন তার নিজের ভিডিও আপলোড করতে পারেন। শার্লিন দাবি করেন, সেই বছর ২৭ মার্চ আচমকা শার্লিনের বাড়ি চলে যান রাজ। আগে থেকে কিছু শার্লিনকে জানাননি তিনি। দু’জনের মধ্যে তর্কাতর্কি চলতে থাকে কোনো একটি মেসেজ নিয়ে। তিনি আরও বলেন, আচমকাই তাকে চুমু খেতে শুরু করেন রাজ। শার্লিন বাধা দিলেও তার কথা শোনেন না তিনি। এমনকি রাজ নাকি শার্লিনকে তার ও শিল্পার সম্পর্কের সমস্যার কথা বলতে শুরু করেন। রাজের কথায়, তাদের সম্পর্ক নাকি ‘জটিল’। আর তাই তিনি সর্বদা মানসিক চাপে থাকেন। শার্লিনের দাবি, সেই পরিস্থিতিতে তিনি খুব ভয় পেয়ে যান। রাজকে ধাক্কা মেরে সরিয়ে দিয়ে বাথরুমে চলে যান।

বৃহস্পতিবার, ২৯ জুলাই ২০২১, ১৪:১৭