মঙ্গলবার,

২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১,

১২ আশ্বিন ১৪২৮

পরীক্ষামূলক প্রকাশ

মঙ্গলবার,

২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১,

১২ আশ্বিন ১৪২৮

Radio Today News

সাতক্ষীরায় ‘আওয়ামী স্বাধীনতা প্রজন্ম লীগ’ ও ‘গণটেলিভিশন’ এর চেয়ারম্যান পরিচয়ে চলছে চাঁদাবাজি

সাতক্ষীরা প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ২১:৪৬, ৩ আগস্ট ২০২১

আপডেট: ১২:৪২, ৪ আগস্ট ২০২১

সাতক্ষীরায় ‘আওয়ামী স্বাধীনতা প্রজন্ম লীগ’ ও ‘গণটেলিভিশন’ এর চেয়ারম্যান পরিচয়ে চলছে চাঁদাবাজি

অভিযুক্ত মো. আনিসুর রহমান

সাতক্ষীরায় ‘আওয়ামী স্বাধীনতা প্রজন্ম লীগ’ নামে এক ভূঁইফোঁড় সংগঠনের সন্ধান মিলেছে। দেশের ৬০টি জেলায় এই সংগঠনের সাংগঠনিক কমিটি রয়েছে। এদের সদস্য সংখ্যাও ৫৫-৬০ হাজার।

আলোচিত এই সংগঠনের চেয়ারম্যান সাতক্ষীরার শ্যামনগর উপজেলার সোয়ালিয়া গ্রামের মো. আনিসুর রহমান। তিনি একইসাথে গণ টেলিভিশন, দৈনিক সময়, বাংলাদেশ কেন্দ্রীয় প্রেসক্লাব, গণফাউন্ডেশন এবং মানবিক সাতক্ষীরারও চেয়ারম্যান। মো. আনিসুর রহমান ‘কিংবদন্তী মুজিব’ বইয়েরও লেখক।

শ্যামনগরের বিভিন্ন পর্যায়ের মানুষ জানিয়েছেন, আনিসুর রহমান বহু সংগঠনের পরিচয় দিয়ে চাঁদাবাজি করছেন। একইসাথে সাংবাদিকতার পরিচয় দিয়েও চাঁদাবাজি করছে। তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা জরুরি।

অভিযোগ রয়েছে, এসব সংগঠনের নাম করে এবং কমিটি তৈরীর নামে চাঁদাবাজি করে আসছেন। তবে সংগঠনটির চেয়ারম্যান মো. আনিসুর রহমান তা সরাসরি অস্বীকার করে বলেন, ‘আমি এখনো একটি মাটির ঘরে বসবাস করি। আমি চাঁদা চাইবার মতো যোগ্যতাও রাখি না।

চাঁদাবাজির অভিযোগ সম্পূর্ণ বানোয়াট। এছাড়া আমি আওয়ামী স্বাধীনতা প্রজন্ম লীগ ও গণ টেলিভিশন ছাড়া অন্য কিছুর সঙ্গে সম্পৃক্ত নই’। 

আনিসুর রহমান জানান, ‘আওয়ামী স্বাধীনতা প্রজন্ম লীগ’ নামের এই সংগঠনের বয়স প্রায় ১০ বছর। বর্তমানে এর সাধারণ সম্পাদক রয়েছেন মুন্সিগঞ্জ জেলার মাহদী হাসান মল্লিক। সাতক্ষীরা জেলায় এই সংগঠনের কমিটি রয়েছে। এর সভাপতি মো. রাজু ইসলাম ও সাধারণ সম্পাদক আশেকুর রহমান বলে জানান তিনি। 

মো. আনিসুর রহমান জানান, তিনি তার সংগঠনের মাধ্যমে বঙ্গবন্ধুর আদর্শ ধারণ ও প্রচার করে থাকেন। সরকারের উন্নয়ন কার্যক্রমের সঙ্গে নিজেদের একাত্ম করে সংগঠনটি পরিচালিত হয়ে আসছে। তিনি জানান, আমার সংগঠনটির অনুমোদনের জন্য চেষ্টা করছি।

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ এর অনুমোদন না দিলে প্রয়োজনে সংগঠনটির কার্যক্রম বন্ধ করে দেওয়া হবে। আনিসুর রহমান জানান, সাতক্ষীরা জেলা আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদককে তিনি চেনেন মাত্র। তবে তার সাথে তেমন পরিচয় নেই। 

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মো. নজরুল ইসলাম বলেন, প্রজন্ম লীগ নাম ব্যবহার করে ৩-৪টি সংগঠনের কথা শুনেছি। তবে ‘আওয়ামী স্বাধীনতা প্রজন্ম লীগ’ নামে কোনো সংগঠন বা তার প্রধানের সাথে আমার পরিচয় নেই।

শ্যামনগর-কালিগঞ্জ আসনের সংসদ সদস্য ও শ্যামনগর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এসএম জগলুল হায়দর জানান, আনিসুর রহমান নামের এক যুবক নিজেকে আওয়ামী স্বাধীনতা প্রজন্ম লীগ, গণ টেলিভিশন, বাংলাদেশ কেন্দ্রীয় প্রেসক্লাবসহ বিভিন্ন সংগঠনের চেয়ারম্যান দাবি করে আমার সঙ্গে কিছুদিন আগে দেখা করতে এসেছিলেন। এসব বিষয়ে তার অনুমোদন আছে কিনা তা আমার জানা নেই।

রেডিওটুডে নিউজ/ইকে/এসআই

সর্বশেষ

সর্বাধিক সবার কাছের