মঙ্গলবার,

১৮ মে ২০২১

শ্রদ্ধা জানাতে আবদুল কাদেরের মহদেহ নেওয়া হবে শিল্পকলায়

নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রকাশিত: ১২:২০, ২৬ ডিসেম্বর ২০২০

আপডেট: ০৭:৫১, ১৩ জানুয়ারি ২০২১

শ্রদ্ধা জানাতে আবদুল কাদেরের মহদেহ নেওয়া হবে শিল্পকলায়

আবদুল কাদের

সর্বস্তরের মানুষের শ্রদ্ধা জানাতে জনপ্রিয় অভিনেতা আবদুল কাদেরের মরদেহ রাখা হবে রাজধানীর সেগুনবাগিচার শিল্পকলা একাডেমি প্রাঙ্গণে। শনিবার বিকেলে বনানীতে দাফন করা হবে তার মরদেহ।  

আবদুল কাদেরের পুত্রবধূ জাহিদা ইসলাম জেমি এ তথ্য জানান। তিনি বলেন, ‘হাসপাতাল থেকে মরদেহ নিয়ে যাওয়া হবে মিরপুর ডিওএইচএস’র বাসায়। ডিওএইচএস জামে মসজিদে প্রথম জানাজা হওয়ার কথা রয়েছে।’

জাহিদা ইসলাম আরও বলেন, ‘বিকেল সাড়ে ৩টা থেকে সেগুনবাগিচার শিল্পকলা একাডেমি প্রাঙ্গণে মরদেহে সর্বস্তরের মানুষের শ্রদ্ধা নিবেদনের জন্য রাখা হবে। এরপর বনানী কবরস্থানে তাকে দাফন করা হবে।’

ক্যানসারের মধ্যে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত অভিনেতা আবদুল কাদের শনিবার সকাল ৮টা ২০ মিনিটে রাজধানীর এভারকেয়ার হাসপাতালে শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন।

‘ব্যাক পেইন’ নিয়ে উন্নত চিকিৎসার জন্য গত ৮ ডিসেম্বর চেন্নাইয়ে যান আবদুল কাদের। গত ১৫ ডিসেম্বর কাদের ক্যানসার আক্রান্ত বলে জানান ওই হাসপাতালের চিকিৎসকরা। চতুর্থ স্তরের ক্যানসার তার সারা শরীরে ছড়িয়ে পড়েছে। গত ২০ ডিসেম্বর দেশে নিয়ে আসার সিদ্ধান্ত নেন তার পরিবার। দেশে ফিরে এভারকেয়ার হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়। গত সোমবার সন্ধ্যায় তার কোভিড-১৯ পরীক্ষার ফল পজিটিভ আসে।

কথাসাহিত্যিক হুমায়ূন আহমেদের লেখা ‘কোথাও কেউ নেই’ ধারাবাহিক নাটকে ‘বদি‘ চরিত্রে অভিনয় করে তুমুল আলোচনায় আসেন আবদুল কাদের। এ ছাড়া জনপ্রিয় ম্যাগাজিন অনুষ্ঠান ‘ইত্যাদি’র পরিচিত মুখ তিনি। হাস্যরসাত্মক চরিত্রে অভিনয়ের জন্য ছোট পর্দায় তিনি তুমুল জনপ্রিয়। নাটক, চলচ্চিত্রের পাশাপাশি বেশ কিছু বিজ্ঞাপনচিত্রেও দেখা গেছে তাকে। থিয়েটারেও সরব ছিলেন তিনি।

অভিনেতা আবদুল কাদের ১৯৫১ সালে মুন্সীগঞ্জের টঙ্গিবাড়ী উপজেলার সোনারং গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন।  ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে অর্থনীতিতে স্নাতক ও স্নাতকোত্তর করেন। কর্মজীবন শুরু হয় শিক্ষকতা দিয়ে। তিনি অর্থনীতিতে সিঙ্গাইর কলেজ ও লৌহজং কলেজে শিক্ষকতা করেছিলেন।

বিটপী বিজ্ঞাপনী সংস্থায় এক্সিকিউটিভ হিসেবে চাকরির পর ১৯৭৯ সাল থেকে আন্তর্জাতিক কোম্পানি ‘বাটা’তে চাকরি করেন। সেখানে ছিলেন ৩৫ বছর।