বুধবার,

১৯ মে ২০২১

কারেন্ট পোকায় ভুগছেন হবিগঞ্জের কৃষকরা

নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রকাশিত: ১৮:৫৪, ২৫ ডিসেম্বর ২০২০

কারেন্ট পোকায় ভুগছেন হবিগঞ্জের কৃষকরা

সংগৃহীত ছবি

হবিগঞ্জের হাওরাঞ্চলে নদ-নদী খনন না করা ও অপরিকল্পিতভাবে ফসল রক্ষা বাঁধ নির্মাণের কারণে যে প্রভার পড়েছিল, তার চেয়েও বড় সমস্যায় ভুগছেন কৃষকরা। ধানের বীজতলা তৈরি করতে না পারা বা নভেম্বরের শুরুতে চারা তৈরি করতে না পারলেও এবার কারেন্ট পোকার (বাদামি গাছ ফড়িং) আক্রমণ তাদের বেশ ভোগাচ্ছে।

কীটনাশক ছিটিয়েও রক্ষা করতে না পারায় ছোট ছোট পোকাগুলো চারা গাছ খেয়ে ফেলছে। সবুজ পাতা খেয়ে চারা নষ্ট করছে কারেন্ট পোকা। লাখাই, আজমিরীগঞ্জ, বাহুবল ও নবীগঞ্জ উপজেলার বীজতলায়ও আক্রমণ করেছে বাদামি গাছ ফড়িং। সবচেয়ে বেশি ক্ষতি হয়েছে বানিয়াচং উপজেলায়।

উপজেলাগুলোর বহু কৃষক এ সমস্যার কারণে আর্থিকভাবেও ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছেন। তাদের অভিযোগ, সরকারের পক্ষ থেকে এসব সমস্যা সমাধানে তারা কোনো সহযোগিতা পাচ্ছেন না। অধিকাংশ কৃষকেরই বীজতলা নষ্ট হয়ে গেছে। চারা কিনেও যদি রোপন করতে না পারেন তাহলে জমি পতিত থাকবে।

জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর জানিয়েছে, চলতি বছর হবিগঞ্জ জেলায় এক লাখ ২০ হাজার ৯০০ হেক্টর জমিতে বোরো আবাদের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে। এসব জমির জন্য সাড়ে পাঁচ হাজার হেক্টরের বেশি জমির চারা দরকার পড়বে। কিন্তু জেলায় বীজতলা তৈরি হয়েছে ছয় হাজার হেক্টরের কিছু বেশি জমিতে।

জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপপরিচালক তমিজ উদ্দিন বলেন, ‘কৃষকরা যেভাবে অভিযোগ করছেন সেভাবে ক্ষতি হয়নি। পোকার আক্রমণ শুরু হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে কৃষি অফিস থেকে সরকারিভাবে স্প্রে করা হচ্ছে। এ ছাড়া কৃষকদেরও বিভিন্নভাবে পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। চাহিদার চেয়ে বেশি বীজতলা তৈরি হওয়ায় কৃষকরা সংকটে পড়বেন না।’

সম্পর্কিত বিষয়: