মঙ্গলবার,

১৬ এপ্রিল ২০২৪,

৩ বৈশাখ ১৪৩১

মঙ্গলবার,

১৬ এপ্রিল ২০২৪,

৩ বৈশাখ ১৪৩১

Radio Today News

শহিদ মিনারে সমাবেশ শেষে বুয়েটে ছাত্রলীগের প্রবেশ

রেডিওটুডে রিপোর্ট

প্রকাশিত: ১৮:৪১, ৩১ মার্চ ২০২৪

আপডেট: ১৯:১০, ৩১ মার্চ ২০২৪

Google News
শহিদ মিনারে সমাবেশ শেষে বুয়েটে ছাত্রলীগের প্রবেশ

কেন্দ্রীয় শহিদ মিনারে প্রতিবাদ সমাবেশ শেষে ছাত্রলীগের সভাপতি সাদ্দাম হোসেনের নেতৃত্বে সংগঠনের নেতাকর্মীরা বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) ক্যাম্পাসে গিয়েছিলেন। বুয়েটের শহিদ মিনার প্রাঙ্গণে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানিয়েছেন তারা। পরে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা বুয়েট ক্যাম্পাস ছেড়ে যান। 

এর আগে, বুয়েটে নিয়মতান্ত্রিক ছাত্ররাজনীতির দাবিতে রোববার (৩১ মার্চ) দুপুরে কেন্দ্রীয় শহিদ মিনারে প্রতিবাদ সমাবেশ করে ছাত্রলীগ।

বুয়েট ক্যাম্পাসে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের প্রবেশ ও রাজনৈতিক কর্মকাণ্ড চালানোর প্রতিবাদসহ পাঁচ দফা দাবিতে আজ তৃতীয় দিনের মতো বিক্ষোভ করছেন বুয়েট শিক্ষার্থীরা। যদিও আজ তাদের আনুষ্ঠানিক কোনও কর্মসূচি ছিল না। তবে ঘোষণা অনুযায়ী, টার্ম ফাইনাল পরীক্ষাসহ সব ধরনের একাডেমিক কার্যক্রম বর্জন আজও চলছে। এর মধ্যেই কেন্দ্রীয় শহিদ মিনারে সমাবেশ শেষে বুয়েট ক্যাম্পাসে গেলেন ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় নেতারা।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, বেলা আড়াইটার দিকে ছাত্রলীগের সভাপতি সাদ্দাম হোসেনের নেতৃত্বে বিপুলসংখ্যক নেতাকর্মী বুয়েট ক্যাম্পাসে আসেন। তারা বুয়েটের শহিদ মিনার প্রাঙ্গণে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান। এরপর বুয়েট ক্যাম্পাস ছেড়ে যান তারা।

দুপুর ১২টার দিকে কেন্দ্রীয় শহিদ মিনারে প্রতিবাদ সমাবেশ করে ছাত্রলীগ। সমাবেশ শুরুর আগে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন হল এবং ছাত্রলীগ ঢাকা মহানগরীর বিভিন্ন ইউনিট থেকে মিছিল নিয়ে নেতাকর্মীরা শহিদ মিনারে জড়ো হন। ‘মৌলবাদের আস্তানা, ভেঙে দাও, গুঁড়িয়ে দাও’, ‘শিবিরের আস্তানা, ভেঙে দাও, গুঁড়িয়ে দাও’ ইত্যাদি স্লোগান দিতে দিতে শহিদ মিনারের দিকে আসেন নেতাকর্মীরা।

প্রসঙ্গত, ২০১৯ সালের অক্টোবরে বুয়েটের শেরে বাংলা হলে আবরার ফাহাদকে পিটিয়ে হত্যার ঘটনায় শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের পরিপ্রেক্ষিতে ক্যাম্পাসে ছাত্ররাজনীতি নিষিদ্ধ করে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। হত্যার ওই ঘটনায় অভিযুক্ত সবাই ছিলেন ছাত্রলীগের বুয়েট শাখার নেতাকর্মী। এ ঘটনায় করা মামলার রায় হয় ২০২১ সালে। রায়ে ২০ জনকে মৃত্যুদণ্ড এবং ৫ জনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডাদেশ দেন আদালত।

 

রেডিওটুডে/এমএমএইচ

সর্বশেষ

সর্বাধিক সবার কাছের