মঙ্গলবার,

১৮ মে ২০২১

ফরজ নামাজ শেষে নবী (সা.) হাত তুলে দোয়া করতেন কি?

শাইখ আহমদ উল্লাহ

প্রকাশিত: ১২:০৮, ১১ ডিসেম্বর ২০২০

আপডেট: ১১:৫৩, ৯ জানুয়ারি ২০২১

ফরজ নামাজ শেষে নবী (সা.) হাত তুলে দোয়া করতেন কি?

প্রতীকী ছবি

ফরজ নামাজে সালাম ফেরানোর পর আমাদের কাজ হলো কিছু দোয়া ও জিকির পড়া। যেমন আয়াতুল কুরসি, সুরা ইখলাছ, সুরা ফালাক, সুরা নাস একবার করে পড়া। এ ছাড়া আস্তাগফিরুল্লাহ সহ কিছু জিকির করা।

অনেকগুলো দোয়া ও দরুদ মহানবী (সা.) নামাজে সালাম ফেরানোর পরে পড়তেন। সেগুলো পড়া হলো সুন্নত। নবীর ওই সব সুন্নত পালন না করে আমরা হাত তুলে দোয়া করি। নবী (সা.) নামাজের পরে সাহাবীদের নিয়ে এভাবে হাত তুলে দোয়া করতেন না।

অনেক আলেম-ওলামা হাত তুলে দোয়া করাকে মুস্তাহাব মনে করেন। যুক্তি হিসেবে দলিল দেন, নামাজের পরে দোয়া কবুল হয় বলে সহি হাদিসে আছে। হাদিসে এসেছে, দুই সময়ে দোয়া কবুল হয়। একটা হলো ভোররাত, আরেকটা সময় হলো নামাজের পরে। 

এসব হাদিস দিয়ে অনেক ওলামা মনে করেন, নামাজের শেষে দোয়া কবুল হয়। আর দোয়া কবুলের আদব হলো হাত তোলা।

তারা আরেক হাদিসের উদ্ধৃতি দিয়ে বলেন যে, হাদিসে আছে, যদি কিছু মানুষ একত্রে হয়, একজন দোয়া করেন অন্যরা আমিন বলেন-তাহলে আল্লাহ দোয়া কবুল করে।

কিন্তু চূড়ান্ত কথা হলো, নবী (সা.) ব্যক্তিগত জীবনে স্ত্রীর সঙ্গে কেমন আচরণ করেছেন, সেটাও হাদিসে আছে। তাহলে তিনি যদি সাহাবীদের নিয়ে ফরজ নামাজ শেষে দোয়া করতেন, তাহলে সেটা হাদিসে থাকত না?

নবী (সা.) নামাজের পরে সম্মিলিত দোয়া করেছেন, এমন হাদিস পাওয়া যায় না। তাই নামাজের পরে হাত তুলে সম্মিলিত দোয়া নয়, নামাজের পড়ে দোয়া এবং জিকিরের প্রচলন করেন।