রোববার,

১৬ মে ২০২১

মামলা নিয়ে যা বললেন সাঈদ খোকন

অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশিত: ২২:৪৮, ২৯ ডিসেম্বর ২০২০

আপডেট: ০৯:৩৮, ৩০ ডিসেম্বর ২০২০

মামলা নিয়ে যা বললেন সাঈদ খোকন

নকশাবহির্ভূত দোকান বরাদ্দ দিয়ে টাকা আত্মসাতের অভিযোগে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের সাবেক মেয়র সাঈদ খোকনের বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে। মঙ্গলবার ফুলবাড়িয়া সুপার মার্কেট-২ এর সভাপতি দেলোয়ার হোসেন ওরফে দেলু আদালতে এ মামালা দায়ের করেন।

তবে ওই মামলার ইন্ধনদাতা হিসেবে বর্তমান মেয়র শেখ ফজলে নূর তাপস রয়েছেন বলে ইঙ্গিত দিয়েছেন সাঈদ খোকন। 

তিনি বলেন, সবাই বলছে বর্তমান মেয়র শেখ ফজলে নূর তাপস দেলোয়ার হোসেন ওরফে দেলুকে দিয়ে এসব নোংরামি করাচ্ছেন। এতে করে তার (তাপস) নিজের ও দলের ইমেজ ক্ষুণ্ণ হচ্ছে। 

মঙ্গলবার ঢাকা মহানগর হাকিম আশেক ইমামের আদালতে দেলোয়ার হোসেন ওই মামলা করেন। আদালত বাদীর জবানবন্দি গ্রহণ করে আদেশের জন্য আগামী বুধবার দিন ধার্য করেন। আদালতের পেশকার মিজানুর রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। 

ওই মামলায় সাঈদ খোকনের পাশাপাশি সিটি করপোরেশনের সাবেক প্রধান রাজস্ব কর্মকর্তা ইউসুফ আলী সরদার, সাবেক উপ-সহকারী প্রকৌশলী মাজেদ, জনৈক কামরুল হাসান, হেলেনা আক্তার, আতিকুর রহমান ও ওয়ালিদকেও আসামি করা হয়েছে। 

মামলার অভিযোগে বাদী দেলোয়ার দাবি করেছেন, ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের সাবেক মেয়র সাঈদ খোকনসহ অন্য আসামিরা পরস্পর যোগসাজশে ফুলবাড়িয়া সিটি সুপার মার্কেটে নকশাবহির্ভূত স্থাপনা তৈরি করে দোকান বরাদ্দ দেয়ার ঘোষণা দেন। পরে ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীরা ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনে যোগাযোগ করলে তৎকালীন মেয়র অন্য আসামিদের সঙ্গে যোগাযোগ করে দোকান বরাদ্দ নেয়ার কথা বলেন।

এরপর ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীরা আসামি কামরুল হাসান, হেলেনা আক্তার ও আতিকুর রহমানের সঙ্গে যোগাযোগ করেন। মেয়র সাঈদ খোকনসহ অন্য আসামিরা ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীদের সঙ্গে প্রতারণা করে কোটি কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়েছেন।