বৃহস্পতিবার,

২৫ জুলাই ২০২৪,

১০ শ্রাবণ ১৪৩১

বৃহস্পতিবার,

২৫ জুলাই ২০২৪,

১০ শ্রাবণ ১৪৩১

Radio Today News

ঐতিহাসিক শোলাকিয়ায় ঈদের ১৯৭তম জামাত অনুষ্ঠিত

রেডিওটুডে রিপোর্ট

প্রকাশিত: ১২:২৬, ১৭ জুন ২০২৪

আপডেট: ১৪:৩২, ১৭ জুন ২০২৪

Google News
ঐতিহাসিক শোলাকিয়ায় ঈদের ১৯৭তম জামাত অনুষ্ঠিত

পৌনে তিনশ বছরের প্রাচীন কিশোরগঞ্জের ঐতিহাসিক শোলাকিয়া ঈদগাহ ময়দানে শান্তিপূর্ণভাবে ঈদুল আজহার জামাত অনুষ্ঠিত হয়েছে। সোমবার সকাল ৯টায় শোলাকিয়ায় ঈদের জামাত শুরু হয়। এতে ইমামতি করেন স্থানীয় মারকাস মসজিদের খতিব মুফতি মাওলানা হিফজুর রহমান খান।

ঈদের নামাজ শেষে মোনাজাতে দেশের শান্তি, সমৃদ্ধি ও দেশের মানুষের সুস্থতা কামনা করে দোয়া করা হয়। এ ছাড়া ইসরায়েলের আগ্রাসন থেকে ফিলিস্তিনি মুসলমানদের হেফাজত কামনাসহ মুসলিম উম্মাহর শান্তি ও সমৃদ্ধি কামনা করা হয়।     

এর আগে সুদীর্ঘকালের ঐহিত্য অনুসারে জামাত শুরুর ১৫ মিনিট আগে পুলিশ সুপার মোহাম্মদ রাসেল শেখ শটগানের তিনটি গুলি ছোঁড়েন। পরে জামাত শুরুর ১০ মিনিট আগে আরও দুটি এবং পাঁচ মিনিট আগে আরও একটি গুলি ছোঁড়া হয়। এরপর ঈদগাহ কমিটির সভাপতি জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ আবুল কালাম আজাদ, পুলিশ সুপার মোহাম্মদ রাসেল শেখ ও পৌর মেয়র মাহমুদ পারভেজ মুসল্লিদের শুভেচ্ছা জানিয়ে সংক্ষিপ্ত বক্তব্য রাখেন।

ঈদুল ফিতরের জামাতে দেশের বিভিন্ন প্রান্তের ৫ লক্ষাধিক মুসল্লি শোলাকিয়ায় নামাজ আদায় করেন। তবে কোরবানির ব্যস্ততার কারণে ঈদুল আজহায় মুসল্লির সংখ্যা কিছুটা কমে যায়।

এদিকে দূরবর্তী মুসল্লিদের শোলাকিয়ায় ঈদের নামাজ আদায় এবং যাতায়াতের সুবিধার্থে রেল বিভাগ ভৈরব ও ময়মনিংহ থেকে কিশোরগঞ্জ পর্যন্ত দুটি ঈদ স্পেশাল ট্রেনের ব্যবস্থা করেছিল। জামাতে নিরাপত্তার জন্য পুলিশ ও র‍্যাবের পাশাপাশি দুই প্লাটুন বিজিবি মোতায়েন করা হয়েছিল, ছিল ক্যামেরাবাহী ড্রোন। এ ছাড়া ঈদগাহের আশেপাশে ছিল পুলিশ ও র‍্যাবের পৃথক ওয়াচ টাওয়ার।

এর আগে মেটাল ডিটেক্টর ও আর্চওয়েসহ চার স্তরের নিরাপত্তা ব্যবস্থার মধ্যে দিয়ে মুসল্লিদের ঈদগাহে ঢুকতে হয়।

১৭৫০ সালে শোলাকিয়া ঈদগাহ ময়দানটি প্রতিষ্ঠিত হলেও ১৮২৮ সালে প্রথম সোয়া লাখ মুসল্লির অংশগ্রহণে সর্ববৃহৎ ঈদ জামাত অনুষ্ঠিত হয়েছিল বলে জানা যায়। সেই হিসেবে এবারের ঈদুল আজহার জামাত শোলাকিয়ায় ১৯৭তম জামাত।

রেডিওটুডে নিউজ/আনাম

সর্বশেষ

সর্বাধিক সবার কাছের