শুক্রবার,

৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২,

১৫ আশ্বিন ১৪২৯

শুক্রবার,

৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২,

১৫ আশ্বিন ১৪২৯

Radio Today News

সরকারকে বেকায়দায় ফেলতে ষড়যন্ত্র করছে টিআইবি: খাদ্য মন্ত্রণালয়

রেডিওটুডে রিপোর্ট

প্রকাশিত: ২৩:০৪, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২২

আপডেট: ২৩:০৪, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২২

সরকারকে বেকায়দায় ফেলতে ষড়যন্ত্র করছে টিআইবি: খাদ্য মন্ত্রণালয়

সংগৃহীত ছবি

বেশি দামে গম আমদানি নিয়ে ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশের (টিআইবি) বিবৃতির প্রতিবাদ জানিয়েছে খাদ্য মন্ত্রণালয়। মন্ত্রণালয় দাবি করে, সরকার বেশি দামে গম কেনেনি এবং কোনো অনিয়মও হয়নি।

খাদ্য মন্ত্রণালয় মনে করে সঠিক তথ্য গোপন করে উদ্দেশ্য প্রণোদিতভাবে জনগণকে বিভ্রান্ত করতে গণমাধ্যমে বিবৃতি পাঠিয়েছে টিআইবি। সরকারকে বেকায়দায় ফেলতে এ ষড়যন্ত্র করছে তারা।আজ সোমবার গণমাধ্যমে পাঠানো সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এসব কথা জানায় খাদ্য মন্ত্রণালয়।
 

টিআইবির প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে ভুল ও অসঙ্গতিপূর্ণ তথ্য দেওয়া হয়েছে জানিয়ে খাদ্য মন্ত্রণালয় জানায়, টিআইবির বিবৃতিতে গণখাতের ক্রয় আইন লঙ্ঘন করে রাশিয়া থেকে সরকারি পর্যায়ে (জিটুজি) পাঁচ লাখ টন গম কেনায় তৃতীয় একটি পক্ষকে যুক্ত করা হয়েছে বলে জানানো হয়।

এর ব্যাখ্যায় মন্ত্রণালয় জানায়, গম ও চাল ক্রয়ের খাদ্য মন্ত্রণালয় গণখাতে ক্রয় আইন লঙ্ঘন করেনি এবং কোনো তৃতীয় পক্ষকে ক্রয় প্রক্রিয়ায় যুক্ত করেনি। যে তৃতীয় পক্ষের নাম বলা হচ্ছে, তাদেরকে রাশিয়া সরকারের পক্ষ থেকে লোকাল এজেন্ট হিসেবে নিয়োগ দেয়া হয়েছে। জিটুজি কার্যক্রমে সরকার নির্ধারিত কমিটির সদস্যরা (বিভিন্ন মন্ত্রণালয় ও বিভাগের) বাংলাদেশ সরকারের পক্ষে নেগোসিয়েশন প্রক্রিয়ায় অংশ নেন এবং সভায় সর্বসম্মতভাবে ক্রয়ের সিদ্ধান্ত নেন। নেগোসিয়েশনের পর খাদ্য মন্ত্রণালয় থেকে প্রস্তাবটি ক্রয় কমিটিতে যায়। ক্রয় কমিটি বিস্তারিত আলোচনার পর অনুমোদন দেয়। তারপর খাদ্য মন্ত্রণালয় কার্যাদেশ দেয়। এখানে তৃতীয় কোনো পক্ষের অংশগ্রহণের সুযোগ নেই।

এমএমএস

সর্বশেষ

সর্বাধিক সবার কাছের