রোববার,

০৫ ডিসেম্বর ২০২১,

২০ অগ্রাহায়ণ ১৪২৮

রোববার,

০৫ ডিসেম্বর ২০২১,

২০ অগ্রাহায়ণ ১৪২৮

Radio Today News

গান শুনবেন আর ব্র্যাকেটে জাহান্নামের ভয় দেখাবেন! এ কেমন বৈপরীত্য? প্রশ্ন আসিফের

বিনোদন ডেস্ক

প্রকাশিত: ১৫:০২, ৭ আগস্ট ২০২১

আপডেট: ১৫:৪২, ৭ আগস্ট ২০২১

গান শুনবেন আর ব্র্যাকেটে জাহান্নামের ভয় দেখাবেন! এ কেমন  বৈপরীত্য? প্রশ্ন আসিফের

আসিফ আকবর

সম্প্রতি পরীমনিসহ বেশ কয়েকজন শো’বিজ তারকা গ্রেপ্তারের পর তারকাদের জীবন নিয়ে নানান মত তৈরি হয়েছে সাধারণ দর্শকদের মাঝে। বিষয়টিকে একেক তারকা একেক দিক থেকে পর্যালোচনা করছেন। এবার তারকাদের জীবনের নানান দিক তুলে ধরে নিজের ক্ষোভ প্রকাশ করলেন জনপ্রিয় সংগীত শিল্পী আসিফ আকবর। বৃহস্পতিবার ভোর সাড়ে ৬টার দিকে তার ফেসবুক অ্যাকাউন্টে পোষ্ট করা লেখাটি রেডিও টুডে অনলাইনের পাঠকদের জন্য হুবুহু তুলে ধরা হলো। 

পৃথিবী থেকে বিদায় নিতে হবে সবাইকে। আমরা যারা শো’বিজে কাজ করি, কারো কারো হিসাবে তারা সবাই দোজখে আগুন ধরানোর এক নম্বর লাকরী। আমাদের সমস্ত পাপের শাস্তি দুনিয়াতে আর আখেরাতে একই মাত্রার কিনা জানি না। সিনেমা নাটক গানসহ সমস্ত শৈল্পিক চর্চাকে আজকাল ঘৃনার চোখে দেখা হয়। অত্যাচারী লুটেরা ক্ষমতার অপব্যবহারকারী সুদ ঘুষ খোর হারামজাদারা হয় রাষ্ট্রের এলিট সিটিজেন। মাঝে মাঝে প্রশ্ন জাগে- আপনাদের ঘৃনাভরা মনে আমাদের অস্তিত্ব কিভাবে কাজ করে !!! আমি গান গেয়েছি পাপ করেছি, আমার শাস্তি দুনিয়ায় অভিশপ্ত হয়ে বেঁচে থাকা। 

আপনাদের কেউ কেউ গান শুনবেন, আর ব্র্যাকেটে জাহান্নামের ভয় দেখাবেন !! এ কেমন বৈপরীত্য !!! রঙ্গীন দুনিয়া আপনার দৃষ্টি আকর্ষন করেছে। আপনিও মজা পাচ্ছেন, ফাঁকে ফাঁকে রঙ্গীন দুনিয়ার সঙ্গত পেতে টাকা ঢালছেন নিজের যে কোন পন্থায় উপার্জনের গরমে। সুযোগের অভাবে ভদ্রলোক হয়ে থাকা সমস্ত পাপীর রেকর্ড আল্লাহর কাছে অবশ্যই আছে। শো’বিজ এতো ঘৃনার জায়গা হলে ব্যান করে দেয়া হউক দেশের চলিত সিলেবাস থেকে। 

আমি পুরুষ হিসেবে নিজেই সুযোগ সন্ধানী অপরাধী। আমাকে ধরতে হলে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর হাতে প্রমানের অভাব নেই। যারা ধরবেন তাদের চলাচল তো আমাদের সাথেই !!!

এই নগরে রাতের অন্ধকার জগতে পোশাকে পোশাকে কোন পার্থক্য হয়না। ক্ষমতা যার কাছে তিনি সাধু, বাকী ধৃতরা সব অপরাধী, অথচ সবাই সবাইকে চেনে। হঠাৎ করে ধরা পড়া অপরাধীরা নিজে নিজে তৈরী হয়নি। তাদের পেছনে কেউ ছিল যারা রাষ্ট্রের প্রভাবশালী।

আজকাল বেশী কথা বলতে চাইনা, এখন ভয় লাগে। সব কথা বলাও ঠিকনা। শো’বিজের নাম ভাঙ্গিয়ে খুব মজা হচ্ছে সুপার সিভিলাইজড সোসাইটিতে। রঙ্গীন দুনিয়া সবসময় রঙ্গীন থেকে রঙ্গীনতম হতেই থাকবে। ফেঁসে যাবে উচ্চাভিলাষী কেউ কেউ। তাদের পেছনের পৃষ্ঠপোষকতাকারী গডফাদার নামের শুয়োরগুলো এলিট থেকে যাবে। পাবলিক হাসবে, মজা নিবে শো’বিজের জোকারদের নিয়ে।

তারা ভুলে যায় নিজের পরিবারেও এমন অভিশপ্ত কারো জন্ম হতে পারে। খারাপ আমিও, সবসময়ের জন্যই খারাপ। আমার রুটি রিজিক এর মালিক মহান আল্লাহ, নইলে এই পাপাচারক্লিষ্ট  গান গাওয়া আমার পেশা কেন হবে !!! খুব বেশী খারাপ লাগলে বাংলাদেশের শো’বিজ বয়কট করে আন্তর্জাতিক মাত্রার বিনোদন নিন। শো’বিজে অনেক খারাপ মানুষের ভীড়ে একজন সৈয়দ আবদুল হাদী এবং ফেরদৌসী রহমান আন্টির মত লিভিং লিজেন্ডরাও এখনো সভ্যতার উপমা হয়ে জীবিত আছেন এই বঙ্গদেশে। নিজেও সভ্য হউন, আর আমরা অসভ্যরা আপনার মত সভ্যদের মঙ্গল কামনা করি সবসময়। 
ভালবাসা অবিরাম…

রেডিওটুডে নিউজ/ইকে

সর্বশেষ

সর্বাধিক সবার কাছের