বুধবার,

২০ অক্টোবর ২০২১,

৫ কার্তিক ১৪২৮

পরীক্ষামূলক প্রকাশ

বুধবার,

২০ অক্টোবর ২০২১,

৫ কার্তিক ১৪২৮

Radio Today News

এশিয়ার `বিশ্বকাপ` শুরু আজ

রেডিওটুডে রিপোর্ট

প্রকাশিত: ০৮:৩২, ১ অক্টোবর ২০২১

এশিয়ার `বিশ্বকাপ` শুরু আজ

ফাইল ছবি, ইন্টারনেট থেকে নেয়া

সার্ক অঞ্চলের বেশ কয়েকটি দেশ নিয়ে প্রতি দুই বছর অন্তর হয় সাফ চ্যাম্পিয়নশিপ; যা অনেকের কাছে দক্ষিণ এশিয়ার 'বিশ্বকাপ'। পর্যটনের জন্য পৃথিবীজুড়ে বিখ্যাত মালদ্বীপের মালেতে আজ থেকে শুরু উপমহাদেশের সেই ফুটবল উন্মাদনা। স্বাগতিক মালদ্বীপ, বাংলাদেশ, ভারত, নেপাল ও শ্রীলঙ্কার মধ্যে রাউন্ড রবিন লিগভিত্তিক এ প্রতিযোগিতার সমাপ্তি ঘটবে ১৬ অক্টোবর সেরা দুই দলের মধ্যকার শ্রেষ্ঠত্বের লড়াই দিয়ে। মালের ন্যাশনাল ফুটবল স্টেডিয়ামে প্রথম দিনেই মাঠে নামছে দেড় যুগ ধরে একটি ট্রফির অপেক্ষায় থাকা বাংলাদেশ। বিকেল ৫টায় শ্রীলঙ্কার মুখোমুখি হবে জামাল ভূঁইয়ার দল। রাত ১০টায় স্বাগতিক মালদ্বীপ ও নেপালের মধ্যকার ম্যাচ শুরুর আগে ১০ মিনিটের উদ্বোধন অনুষ্ঠান রেখেছে আয়োজকরা।

বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে গত বছর ঢাকায় হওয়ার কথা ছিল সাফ চ্যাম্পিয়নশিপ। কিন্তু করোনাভাইরাসে এলোমেলো হয়ে যাওয়া বিশ্ব ক্রীড়াঙ্গনের সঙ্গে পিছিয়ে যায় এ টুর্নামেন্ট। চলতি বছর আয়োজক হিসেবে বাংলাদেশ থাকলেও বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়ামের সংস্কার কাজের কারণে এ প্রতিযোগিতা আয়োজনে অপারগতা দেখায় বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন। দক্ষিণ এশিয়ান ফুটবলের নিয়ন্ত্রক সংস্থা আয়োজক হিসেবে বেছে নেয় মালদ্বীপকে। ১৩ বছর পর সাফের আয়োজক দ্বীপ দেশটি। ২০০৮ সালেও সাফ চ্যাম্পিয়নশিপ হয়েছিল মালদ্বীপে, সে সময় তারা শ্রীলঙ্কার সঙ্গে যৌথ আয়োজক ছিল।

বৈশ্বিক মহামারির সময়ে যে কোনো টুর্নামেন্ট আয়োজন করা কঠিন। মালেতে অংশগ্রহণকারী দলগুলো বায়ো-বাবলের মধ্যে আছে। দর্শকদের কথা চিন্তা করে গ্যালারিতে পাঁচ হাজার দর্শক ঢোকার অনুমতি দিয়েছে সাউথ এশিয়ান ফুটবল ফেডারেশন। তবে যারা টিকিট নেবেন, সবাইকে হতে হবে ভ্যাকসিনেটেড। টুর্নামেন্ট শুরুর আগের দিন গতকাল মালেতে দেখা গেছে টিকিটের জন্য দর্শকের লম্বা লাইন। এ থেকেই বোঝা যাচ্ছে মালদ্বীপে কতটা ফুটবল উন্মাদনা বইছে।

১৯৯৩ সাল থেকে যাত্রা শুরু করা সাফ ফুটবলের ১৩তম আসরে ভারতের সঙ্গে ফেভারিট বর্তমান চ্যাম্পিয়ন মালদ্বীপ। ২০১৮ সালে ঢাকায় সর্বশেষ আসরে ভারতকে হারিয়ে দ্বিতীয় শিরোপা জিতেছিল তারা। এই অঞ্চলের শ্রেষ্ঠত্বের লড়াইয়ে সবার ধরাছোঁয়ার বাইরে ভারত। সাতবার শিরোপা জেতা ভারতের নিচে আছে দু'বার চ্যাম্পিয়ন হওয়া মালদ্বীপ। আফগানিস্তান, শ্রীলঙ্কার সঙ্গে একবার করে ট্রফি জিতেছে বাংলাদেশও। ২০০৩ সালে ঘরের মাঠে চ্যাম্পিয়ন হওয়ার পর সাফে বাংলাদেশের গল্পটা শুধুই হতাশাজনক। 

রেডিওটুডে নিউজ/এইচবি

সর্বশেষ

সর্বাধিক সবার কাছের