সোমবার,

২৪ জানুয়ারি ২০২২,

১০ মাঘ ১৪২৮

সোমবার,

২৪ জানুয়ারি ২০২২,

১০ মাঘ ১৪২৮

Radio Today News

মেশিনে চাল পলিশিং করা প্রতারণা: পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী

স্টাফ রিপোর্টার

প্রকাশিত: ২৩:০৩, ৮ জানুয়ারি ২০২২

আপডেট: ২৩:১৯, ৮ জানুয়ারি ২০২২

মেশিনে চাল পলিশিং করা প্রতারণা: পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী

ফাইল ছবি

মেশিনে চাল পলিশিং করে আকর্ষণীয় করে মিল মালিকরা প্রতারণা করছে বলে জানিয়েছেন পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী ড. শামসুল আলম। তিনি বলেছেন, চাল পলিশিং করে মিলগুলো চালকে চিকন করে। এতে অনেক পুষ্টিগুণ চাল থেকে চলে যায়। একটি অগ্রসরমান অর্থনীতিতে এমন প্রতারণা মানা যায় না। এটা আইন করে বন্ধ করা উচিত।

শনিবার (৮ জানুয়ারি) একটি গণমাধ্যম আয়োজিত “বায়োফর্টিফায়েড জিঙ্কসমৃদ্ধ ব্রি ধানের বাজার সম্প্রসারণ ও জনপ্রিয়করণ” শীর্ষক গোলটেবিল বৈঠকে এসব কথা বলেন তিনি।

তিনি জানান, চালের জাতের উপর গুরুত্ব না দিয়ে মিলগুলো নিজেদের মতো ব্র্যান্ড দাঁড় করিয়ে ভোক্তাদের সঙ্গে প্রতারণা করছে।

ড. শামসুল আলম বলেন, পুষ্টির ঘাটতি রোধে সরকারের বড় বড় পরিকল্পনা বাস্তবায়ন হচ্ছে। শুধু চালের মাধ্যমে জিঙ্ক সরবরাহ করা যাবে এমন নয়। তবে যেহেতু দেশের মানুষের প্রধান খাদ্য চাল সেহেতু চালের মাধ্যমেই জিঙ্ক সরবারহ করা সহজ। চালের মাধ্যমে এ উপাদানের সরবরাহ যথাযথ। আইন করে যেমন লবণে আয়োডিন এবং তেলে ভিটামিন থাকা বাধ্যতামূলক করা হয়েছে তেমনি চালের ক্ষেত্রেও আইন করা দরকার। কেউ প্রতারণা করে চালের যেমন ইচ্ছা তেমন রূপ দেবে এমনটি হতে পারে না।

বাংলাদেশ ধান গবেষণা ইনস্টিটিউট (ব্রি) মহাপরিচালক ড. মো. শাহজাহান কবীর বলেন, দেশের সব ধানের জাতেই কম বেশি জিঙ্গ রয়েছে। তবে ব্রি ধান-৭৪ এবং ব্রি ধান-৮৪ জাত দুটি জনপ্রিয় করা সম্ভব হলে দেশের মানুষের জিঙ্কের ঘাটতি অনেকাংশেই পূরণ করা সম্ভব। এজন্য একটি অ্যাকশন প্লান ও সমন্বিত পরিকল্পনার মাধ্যমে অগ্রসর হতে হবে।

রেডিওটুডে নিউজ/এসএস

সর্বশেষ

সর্বাধিক সবার কাছের