শনিবার,

১৮ মে ২০২৪,

৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

শনিবার,

১৮ মে ২০২৪,

৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

Radio Today News

ইসরাইল যদি আবারও কোনো ‘ভুল’ করে জবাব হবে মাত্র ‘কয়েক সেকেন্ডে’

আন্তর্জাতিক

প্রকাশিত: ১১:৪২, ১৬ এপ্রিল ২০২৪

আপডেট: ১২:৫০, ১৬ এপ্রিল ২০২৪

Google News
ইসরাইল যদি আবারও কোনো ‘ভুল’ করে জবাব হবে মাত্র ‘কয়েক সেকেন্ডে’

ইসরাইল যদি আবার ইরানের বিরুদ্ধে কোনো ‘ভুল’ করে তাহলে তেল আবিব মাত্র ‘কয়েক সেকেন্ডে’ তার জবাব পাবে বলে হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেছেন ইরানের উপপররাষ্ট্রমন্ত্রী আলী বাকেরি কানি। 

রোববার রাতে ইরানের টেলিভিশনে সম্প্রচারিত এক টক-শো’তে তিনি এ হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেন। খবর প্রেসটিভির।  

বাকেরি বলেন, তারা যদি আরেকটি ভুল করে তাহলে এবার আরও কঠোর, দ্রুততর ও আরও তাৎক্ষণিক জবাব পাবে।

দখলদারদের জেনে রাখতে হবে যে, এবার আর জবাব দেয়ার জন্য ১২ দিন অপেক্ষা করা হবে না জানিয়ে তিনি বলেন, এবার তারা যে জবাব পাবে তা দিন কিংবা ঘণ্টা মেপে হবে না বরং মাত্র কয়েক সেকেন্ডে পাল্টা আঘাত হানা হবে।

গেলো ১ এপ্রিল সিরিয়ার রাজধানী দামেস্কে ইরানি কনস্যুলেটে হামলা চালায় ইসরাইলি বাহিনী। পরে ১৩ ফেব্রুয়ারি রাতে তার জবাব দেয় তেহরান। আমেরিকাসহ পশ্চিমা দেশগুলোর কঠোর হুঁশিয়ারি সত্ত্বেও ইসরাইল লক্ষ্য করে ইরানি ভূখণ্ড থেকে কয়েকশ’ ড্রোন ও ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ করা হয়।

তেহরান বলছে, এই হামলায় ইরানি প্রতিরক্ষা সক্ষমতার ক্ষুদ্র একটি অংশ ব্যবহৃত হয়েছে। 

আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমগুলো জানিয়েছে, ১৩ ফেব্রুয়ারি রাতে আমেরিকা, ব্রিটেন ও ফ্রান্সসহ অন্তত ১০টি দেশের আকাশ প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা ইরানের হামলা আকাশেই প্রতিহত করার কাজে ইসরাইলকে সহযোগিতা করে।

কিন্তু তারপরেও ইসরাইলের দক্ষিণাঞ্চলীয় নেভাতিম ও উত্তরাঞ্চলীয় নেগেভ বিমানঘাঁটিতে ইরানের ক্ষেপণাস্ত্র আঘাত হেনেছে। 

জানা গেছে, এ হামলায় নেভাতিম ঘাঁটিতে থাকা ইসরাইলের একটি সি-১৩০ রসদবাহী বিমান ধ্বংস হয়েছে। এছাড়া এটির রানওয়ে ও একটি স্থাপনার মারাত্মক ক্ষতি হয়েছে। নেগেভ ঘাঁটির ক্ষয়ক্ষতির তথ্য দখলদার ইসরাইল প্রকাশ করেনি।

ইরানের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, দামেস্কের ইরানি কনস্যুলেট ভবনে হামলার কাজে ওই দু’টি ঘাঁটি ব্যবহৃত হয়েছিল বলে কেবল সেখানেই হামলা চালানো হয়েছে; কোনো বেসামরিক স্থাপনা বা অর্থনৈতিক অঞ্চলকে টার্গেট করা হয়নি। 

একইসাথে ইরান এও বলেছে, তবে তেল আবিব যদি আবার কোনো সামরিক হঠকারিতা দেখায় তাহলে পরবর্তী হামলা হবে আরও কঠোর এবং তখন লক্ষ্যবস্তু হবে বিস্তৃত। 

তবে মধ্যপ্রাচ্যে সংঘাত বৃদ্ধির আশঙ্কা ও সংযমের জন্য আন্তর্জাতিক চাপ সত্ত্বেও ইরানের হামলার জবাব দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ইসরাইল। সোমবার বিকেলে দেশটির প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহুর নেতৃত্বে যুদ্ধকালীন মন্ত্রিসভার বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। তবে এ বিষয়ে বিস্তারিত কিছু জানায়নি তেল আবিব। 

রেডিওটুডে নিউজ/আনাম

সর্বশেষ

সর্বাধিক সবার কাছের