শুক্রবার,

৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২,

১৫ আশ্বিন ১৪২৯

শুক্রবার,

৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২,

১৫ আশ্বিন ১৪২৯

Radio Today News

ইউএস ওপেন চ্যাম্পিয়ন ১৯ বছরের কার্লোস আলকারাজ

রেডিওটুডে রিপোর্ট

প্রকাশিত: ০৯:৫১, ১৩ সেপ্টেম্বর ২০২২

ইউএস ওপেন চ্যাম্পিয়ন ১৯ বছরের কার্লোস আলকারাজ

প্রথমবারের মতো গ্র্যান্ড স্লাম শিরোপার দেখা পেলেন। ইউএস ওপেন জিতে সর্বকনিষ্ঠ পুরুষ খেলোয়াড় হিসেবে র‌্যাংকিংয়ের শীর্ষে উঠার রেকর্ডও গড়লেন কার্লোস আলকারাজ। ১৯ বছর বয়সী স্প্যানিশ তারকার স্বপ্নের এক রাত কাটলো রোববার।
ছেলেদের এককের ফাইনালে নরওয়ের ক্যাসপার রুদকে ৬–৪, ২–৬, ৭–৬ (৭–১), ৬–৩ গেমে হারিয়ে প্রথমবারের মতো গ্র্যান্ড স্লাম শিরোপা জিতেছেন আলকারাজ।

২০০৫ ফ্রেঞ্চ ওপেন ১৯ বছর বয়সে গ্র্যান্ড স্লাম জিতেছিলেন রাফায়েল নাদাল। ১৭ বছর আগে নাদালের সেই কীর্তির পর সর্বকনিষ্ঠ খেলোয়াড় হিসেবে গ্র্যান্ড স্লাম জয়ের নজির গড়লেন আলকারাজ।

ফাইনাল জয়ের পর আলকারাজের নামের পাশে লেখা হয়েছে আরও এক কীর্তি। গ্র্যান্ড স্লামের এক টুর্নামেন্টে সর্বোচ্চ সময় কোর্টে কাটানোর রেকর্ড গড়েছেন আলকারাজ। এবার ইউএস ওপেনে ২৩ ঘণ্টা ২১ মিনিট কোর্টে ছিলেন তিনি। এই পথে আলকারাজ ভেঙেছেন ২০১৮ সালে উইম্বলডনে কেভিন অ্যান্ডারসনের গড়া রেকর্ড।

এবারের যুক্তরাষ্ট্র ওপেনের ফাইনাল ছিল তারকাহীন। দুই তরুণের লড়াই। তবু সেটা হয়ে গেল মহাকাব্যিক। প্রথম সেট থেকেই একে অপরকে ছাপিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করছিল দুই তরুণ। তবে দিনটা ছিল আলকারাজের।

প্রথম সেটের তৃতীয় গেমেই রুদের সার্ভিস ব্রেক করেন আলকারাজ। ২-১ এগিয়ে যান তিনি। তবে এতে কিছুটা ধাক্কা খান রুদ। তার উপর প্রথম সেটে তিনটি এস মারেন স্প্যানিশ তরুণ।

সেই সঙ্গে আলাকারাজের বিশেষত্ব হল এনার্জি। মারাত্মক এনার্জি তাঁর। এ মাথা, ও মাথা দৌড়াতে থাকেন। যে কারণে টেনিসের পাশাপাশি এই দৌড়ও আলকারাজকে এগিয়ে রেখেছিল। সেই সঙ্গে নেট পয়েন্টে, ড্রপ শটের ক্ষেত্রেও এগিয়ে ছিলেন আলকারাজ। শেষ পর্যন্ত প্রথম সেটটি স্প্যানিশ তরুণ ৬-৪ জিতে যান।

দ্বিতীয় সেটে দুরন্ত প্রত্য়াবর্তন করেন রুদ। যে নেট পয়েন্ট এবং ড্রপ শট আলকারাজের অন্যতম শক্তি ছিল, সেটাকে হাতিয়ার করে রুদ ৬-২ সেটটি জিতে নেন। ষষ্ঠ গেমে আলকারাজের সার্ভিস ব্রেক করে ৪-২ এগিয়ে গিয়েছিলেন। এরপর আলকারাজ বেশ কিছু ভুল করে বসেন। এ দিকে ওভার হেড ব্যাক হ্যান্ডে অনবদ্য পয়েন্ট নেন রুদ। আলকারাজের কাছে সুযোগ এসেছিল সার্ভিস ব্রেক করার। তবে তিনি ব্যর্থ হন।

৫-২ এগিয়ে থাকায় শুধুমাত্র সার্ভিস ধরে রাখলেই হতো। আলকারাজারের ভুলের সুযোগে আরও একটা ব্রেক পয়েন্ট। দ্বিতীয় সেট ৬-২ জিতে সমতা ফেরান ক্য়াসপার।

তৃতীয় সেটে হলো হাড্ডাহাড্ডি লড়াই। শুরুতেই রুদের সার্ভিস ব্রেক করেন আলকারাজ। তৃতীয় গেমেও ব্রেক পয়েন্টের সুযোগ ছিল আলকারাজের সামনে। কোনও রকমে পরিস্থিতি সামাল দিয়ে ১-২ করেন রুদ। পরের গেমেই আলকারাজের সার্ভিস ব্রেক করে ২-২ করেন রুদ। সার্ভিস ধরে রেখে করেন ৩-২।

সেখান থেকে এই সেটে একটা সময়ে ৫-৪ এগিয়ে গিয়েছিলেন রুদ। তবে সেখান থেকে ঘুরে দাঁড়ান আলকারাজ। সার্ভ ধরে রেখে ৫-৫ করেন তিনি। তবে সেখান থেকে ৬-৫ এ এগিয়ে থেকে সেট পয়েন্টে দাঁড়িয়েছিলেন রুদ। এক বার নয়, তিন বার। ১০ মিনিটের বেশি সময় চলে একটা গেম। অবশেষে তৃতীয় সেট টাইব্রেকারে ৭-৬ (৭-১) জিতে যান আলকারাজ।

চতুর্থ সেটে অবশ্য প্রথম পাঁচ গেমে নিজেদের সার্ভিস ধরে রাখেন রুদ এবং আলকারাজ। ষষ্ঠ গেমে ব্রেক পয়েন্ট নিয়ে ৪-২ এগিয়ে যান স্প্য়ানিশ তরুণ। সার্ভিস ধরে রেখে করেন ৫-২। শেষ পর্যন্ত এস মেরে চ্যাম্পিনশিপ পয়েন্ট ছিনিয়ে নেন আলকারাজ।

প্রথম বার ফাইনালে উঠেই চ্যাম্পিয়ন। ক্যারিয়ার এবং এ বছরে দ্বিতীয় ফাইনালে উঠে রানার্সআপ হয়েই থাকলেন ক্যাসপার রুদ। প্রসঙ্গত, ফ্রেঞ্চ ওপেনে রাফায়েল নাদালের ফাইনালে হেরেছেন রুদ। এবার হারলেন আলকারাজের কাছে।

মিয়ামি, মাদ্রিদ, রিও ও বার্সেলোনায় মাস্টার্স জয়ের পর এ বছর ইউএস ওপেন দিয়ে পঞ্চম ট্রফি জিতলেন আলকারাজ। মাদ্রিদ মাস্টার্সে কাদামাটির কোর্টে নাদাল ও নোভাক জোকোভিচকে হারিয়ে আলোচনায় উঠে এসেছিলেন তিনি। ফাইনাল জিতলে রুদও র‌্যাংকিংয়ের শীর্ষে উঠতেন। সেটা আর হলো না আলকারাজের স্বপ্নের ফর্মের সামনে।

রেডিওটুডে নিউজ/আনাম

সর্বশেষ

সর্বাধিক সবার কাছের