সোমবার,

২৪ জানুয়ারি ২০২২,

১০ মাঘ ১৪২৮

সোমবার,

২৪ জানুয়ারি ২০২২,

১০ মাঘ ১৪২৮

Radio Today News

প্যাড জালিয়াতি করে শিক্ষা বিটে অস্থিরতা সৃষ্টির অপচেষ্টা

রেডিও টুডে রিপোর্ট

প্রকাশিত: ১৭:২৪, ১১ জানুয়ারি ২০২২

প্যাড জালিয়াতি করে শিক্ষা বিটে অস্থিরতা সৃষ্টির অপচেষ্টা

শিক্ষা বিষয়ক রিপোর্টারদের সংগঠন বাংলাদেশ এডুকেশন রিপোর্টার্স ফোরামের (বিইআরএফ) প্যাড জালিয়াতি করে ভূয়া প্রেস বিজ্ঞপ্তি প্রচার করেছে একটি চক্র। ওই প্যাডে বাংলাদেশ এডুকেশন রিপোর্টার্স অ্যাসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ইরাব) এর একাংশের নির্বাচনের সময়সূচী প্রকাশ করা হয়। 

এদিকে পাড জালিয়াতি করে এ ধরণের অপপ্রচার চালানোর কারনে ইতোমধ্যে শিক্ষা বিষয়ক বিটের সাংবাদিকদের বিদ্যমান দুই অংশের মধ্যে বিভেদ দেখা দিয়েছে। তবে শিক্ষা বিষয়ক রিপোর্টারদের আরেকটি সংগঠন বাংলাদেশ এডুকেশন রিপোর্টার্স ফোরাম (বিইআরএফ) তাদের নিজস্ব প্যাডে গণমাধ্যমে একটি বিজ্ঞপ্তি পাঠিয়ে সংশ্লিষ্টদের সতর্ক করা হয়েছে। 

এ বিষয়ে জানতে চাইলে বাংলাদেশ এডুকেশন রিপোর্টার্স ফোরামের সভাপতি মোস্তফা মল্লিক বলেন, ‘বিইআরএফ –এর প্যাড জালিয়াতি করে একটি চক্র নোংরামি করেছে। পেশাদার কারো কাছ থেকে নোংরামি আশা করা যায় না। বিআরএফ সংগঠনে সংবাদপত্র, অনলাইন গণমাধ্যম ও টেলিভিশনের গুরুত্বপূর্ণ সাংবাদিকরা কাজ করেন।  শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি এই সংগঠনের উদ্বোধন করেছেন।  কারা নোংরামি করছেন তা সবাই বুঝতে পারছেন। এর ফল কখনও ভালো হয় না।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে বাংলাদেশ এডুকেশন রিপোর্টার্স ফোরামের সাধারণ সম্পাদক এস এম আববাস বলেন, ‘শিক্ষা বিষয়ক রিপোর্টারদের সংগঠন ইরাবের একাংশের নির্বাচনকে কেন্দ্র করে বিরোধ চলছে। সেই ঘটনার জের ধরে নোংরামি শুরু হয়েছে। এর অংশ হিসেবে বিইআরএফ-এর প্যাড জালিয়াতি করা হয়েছে।  ইরাবের দুই অংশের বিরোধের সঙ্গে বাংলাদেশ এডুকেশন রিপোর্টার্স ফোরামের কোনও সম্পর্ক নেই। কোনও নোংরামির সঙ্গে এডুকেশন রিপোর্টার্স ফেরামমের কোনও সদস্য যুক্ত নেই।

এস এম আববাস আরও বলেন, বাংলাদেশ এডুকেশন রিপোর্টার্স ফোরামের কোনও নির্বাচনের কোনো বিজ্ঞপ্তি দেওয়া হয়নি। এডুকেশন বিটের রিপোর্টারের নামে অপরিচিত দুই জনের নাম উল্লেখ করে বিজ্ঞপ্তি দেওয়া হয়েছে, যা ভুযা।  ভুয়া প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে কোনও যোগাযোগের জন্য নম্বর নেই। অপরিচিত যে দুই জনের নাম ব্যবহার করা হয়েছে, তারা এডুকেশন বিট করে বলে কারো জানা নেই। কেউ যদি সংশ্লিষ্ট দুই জনকে এডুকেশন বিটের রিপোর্টার দাবি করেন, তাহলে বুঝতে হবে তারাই এই জালিয়াতির কাজ করেছেন।

প্রসঙ্গত, বর্তমানে শিক্ষা বিটের রিপোর্টারদের একাধিক সংগঠন রয়েছে। একটি হচ্ছে—বাংলাদেশ এডুকেশন রিপোর্টার্স ফোরাম (বিইআরএফ) এবং অন্যটি হচ্ছে—বাংলাদেশ এডুকেশন রিপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ইরাব)। ইরাবের এক অংশের নির্বাহী কমিটি গঠন করা হয়েছে। আর অন্য আরেকটি অংশের নির্বাচন আগামী ১৬ জানুয়ারির মধ্যে সম্পন্ন করার ঘোষণা করা হয়েছে। এছাড়া এসব সংগঠনগুলোর বাইরেও রয়েছেন এডুকেশন বিটের কয়েকজন রিপোর্টার।

রেডিওটুডে নিউজ/এমএস

সর্বশেষ

সর্বাধিক সবার কাছের