শুক্রবার,

১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১,

২ আশ্বিন ১৪২৮

পরীক্ষামূলক প্রকাশ

শুক্রবার,

১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১,

২ আশ্বিন ১৪২৮

Radio Today News

সালাম সালাম হাজার সালাম কন্ঠসৈনিক আব্দুল জব্বার

আবিদ আজম

প্রকাশিত: ২০:০৮, ৩০ আগস্ট ২০২১

আপডেট: ২০:৪৫, ৩০ আগস্ট ২০২১

সালাম সালাম হাজার সালাম কন্ঠসৈনিক আব্দুল জব্বার

আব্দুল জব্বার

স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্রের কন্ঠসৈনিক আব্দুল জব্বার। সালাম সালাম হাজার সালাম, ওরে নীল দরিয়া, তুমি কি দেখেছ কভু জীবনের পরাজয়, জয় বাংলা বাংলার জয়-এর মত অসংখ্য কালজয়ী ও উদ্দীপনা সৃষ্টিকারী গান গেয়ে তিনি জয় করে নিয়েছেন কোটি বাঙালীর হৃদয়। 

১৯৩৮ সালের ১০ ফেব্রুয়ারী কুষ্টিয়া জেলায় জন্মগ্রহণ করেন আবদুল জব্বার। ১৯৫৬ সালে ম্যাট্রিক পাশ করেন তিনি। ১৯৫৮ সাল থেকে তৎকালীন পাকিস্তান বেতারে গান গাইতে শুরু করা আব্দুল জব্বার ১৯৬৪ সাল থেকে টেলিভিশনে নিয়মিত গায়ক হিসেবে তালিকাভূক্ত হন। আর চলচ্চিত্রের জন্য প্রথম গান করেন ১৯৬২ সালে। তার গাওয়া সর্বমোট গানের সংখ্যা প্রায় ৬ হাজার।

পিচ ঢালা এই পথটারে ভালোবেসেছি, শত্রু তুমি বন্ধু তুমি, এক বুক জ্বালা নিয়ে বন্ধু তুমি সহ তাঁর কন্ঠে চলচ্চিত্রের অসংখ্য গান তুমুল জনপ্রিয়তা পায়।

বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধে তার অবদান ছিল অবিস্মরনীয়। সেসময় গলায় হারমোনিয়াম ঝুলিয়ে কলকাতার বিভিন্ন ক্যাম্প ঘুরে ঘুরে গান শোনাতেন তিনি। শুধু তাই নয় স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্রেও নিয়মিত গান গাইতেন; যে গানগুলো মুক্তিযোদ্ধাদের প্রেরণা যুগিয়েছে অবিশ্বাস্যভাবে। 

প্রখ্যাত কন্ঠশিল্পী হেমন্ত মুখোপাধ্যায়কে সাথে নিয়ে ভারতে বাংলাদেশের স্বাধীনতার স্বপক্ষে জনমত গঠনেও ভূমিকা রেখেছেন এই মুক্তিযোদ্ধা। যুদ্ধের সময় ভারতের বিভিন্ন স্থানে গণসঙ্গীত গেয়ে প্রাপ্ত ১২ লাখ টাকা স্বাধীন বাংলাদেশ সরকারের ত্রাণ তহবিলে দান করেছিলেন আব্দুল জব্বার। 

সঙ্গীতে অসামান্য অবদানের স্বীকৃতি স্বরূপ বাংলাদেশ সরকার কর্তৃক ১৯৮০ সালে একুশে পদক ও ১৯৯৬ সালে স্বাধীনতা পুরস্কারে ভূষিত হন আকাশচুম্বী জনপ্রিয় এই সঙ্গীত শিল্পী।

২০১৭ সালের ৩০ আগষ্ট ঢাকায় অমরতার পথে হারিয়ে যান, আব্দুল জব্বার। কালজয়ী এই কন্ঠযোদ্ধাকে জানাই সালাম সালাম হাজার সালাম।

রেডিওটুডে নিউজ/ইকে

সর্বশেষ

সর্বাধিক সবার কাছের