সোমবার,

২৭ জুন ২০২২,

১৩ আষাঢ় ১৪২৯

সোমবার,

২৭ জুন ২০২২,

১৩ আষাঢ় ১৪২৯

Radio Today News

শিক্ষার্থী নির্যাতন বন্ধের দাবিতে ঢাবিতে বিক্ষোভ

ঢাকা ‍বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি:

প্রকাশিত: ২১:২৪, ২০ মে ২০২২

শিক্ষার্থী নির্যাতন বন্ধের দাবিতে ঢাবিতে বিক্ষোভ

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বঙ্গবন্ধু হলে শিক্ষার্থী নির্যাতনের প্রতিবাদে ও সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে নির্যাতন বন্ধের দাবিতে বিক্ষোভ সমাবেশ করেছে বাংলাদেশ ছাত্র অধিকার পরিষদ।
 
শুক্রবার বিকেল ৫টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের সন্ত্রাসবিরোধী রাজু ভাস্কর্যের পাদদেশে বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

সমাবেশে সংগঠনটির কেন্দ্রীয় সভাপতি বিন ইয়ামিন মোল্লা বলেন, বাংলাদেশের সর্বোচ্চ বিদ্যাপীঠে শিক্ষার্থীদের গেস্টরুমে নিয়ে নির্যাতন করা হচ্ছে। কেন করা হচ্ছে? কারণ তারা সরকার দলীয় ছাত্র সংগঠনের কথা শুনে না। ক্ষমতার শেষদিকে এসে আপনারা (ছাত্রলীগ) হতাশ হয়ে বড় বড় মিছিল করে যাচ্ছেন। একবারও কি ভেবে দেখেছেন, যারা মিছিল লম্বা করছে তারা কতজন মন থেকে আপনাদের নেতা হিসেবে মানে? এই মিছিল উল্টে যেতে সময় লাগবে না।
 
তিনি বলেন, যারা দেশের স্বাধীনতা ছিনিয়ে আনলো, সেই ছাত্রদের গোলাম বানিয়ে রেখেছে ছাত্রলীগ। তাদের গেস্টরুমে নির্যাতন করা হচ্ছে, টর্চার সেলে নিয়ে নির্যাতন করা হচ্ছে। এখন সময় এসেছে এসব কিছু রুখে দেয়ার। এ সময় সকল নির্যাতন রুখে দিতে সারাদেশের ছাত্রদের প্রতি আহ্বান জানান তিনি।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সভাপতি আখতার হোসেন বলেন, দিনে প্রোগ্রাম রাতে গেস্টরুম, দিনে প্রোটোকল রাতে গণরুম। এভাবেই চলছে শিক্ষার্থীদের জীবন। যখন বিশ্ববিদ্যালয়শিক্ষার্থীদের জীবন-মানের চিত্র এই, তখন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসন নিরব ভূমিকা পালন করেই যাচ্ছে।

কয়েক দিন আগে বিজয় একাত্তর হলের একটি ঘটনা উদ্ধৃতি দিয়ে তিনি বলেন, দিনে নেতা মধুর ক্যান্টিনে গেছেন। তাকে প্রোটোকল দিতে পরীক্ষার কারণে যেতে পারেনি এক শিক্ষার্থী। তার জন্যে তাকে মুরগি সাজিয়ে রাখা হলো। একজন বিশ্ববিদ্যালয়শিক্ষার্থীর জন্য এটা সর্বোচ্চ অপমানের বিষয়।

ছাত্রলীগের উদ্দেশে তিনি বলেন, এখন হয়তো আপনারা এসব করে পার পেয়ে যাচ্ছেন, কিন্তু সময় সবসময় একরকম থাকে না, সব কিছু স্বরণ রাখা হচ্ছে। আজ হোক বা কাল সব ফিরিয়ে দেয়া হবে। আজ না হোক, ১০০ বছর পর হলেও আপনাদের বিচারের কাঠগড়ায় দাঁড় করানো হবে।
 
ঢাবি শাখার সিনিয়র সহ-সভাপতি আসিফ মাহমুদ বলেন, এমন কোনো মাস যায়নি হলগুলোতে নির্যাতনের ঘটনা ঘটেনি। এগুলো ছাড়া আরো অনেক ঘটনা ঘটে যা আমাদের কানে আসে না। যাদের থাকার জায়গা নাই তদের সাথে যা হয় তারা ভয়ে কাউকে সেসব বলে না। অতএব সবাইকে আহ্বান জানাবো যাতে তারা প্রতিবাদ করে। আমরা চাই, আ্যন্টি র‍্যাগিং আইন বা গেস্টরুম নির্যাতন বিরোধী আইন করা হোক।

সমাবেশ শেষে নেতা-কর্মীরা একটি মিছিল নিয়ে রাজু ভাস্কর্য থেকে ভিসি চত্বর, মলচত্বর, শ্যাডো ও ক্যাম্পাসের বিভিন্ন রাস্তা প্রদক্ষিণ করে আবার রাজুতে এসে শেষ করেন।

রেডিওটুডে নিউজ/ইআ

ইমদাদুল আজাদ

সর্বশেষ

সর্বাধিক সবার কাছের