রোববার,

১৬ মে ২০২১

পেটের মেদ কমানোর কিছু অভ্যাস

লাইফস্টাইল ডেস্ক

প্রকাশিত: ০০:৩৫, ২৪ ডিসেম্বর ২০২০

আপডেট: ১১:২৭, ১০ ফেব্রুয়ারি ২০২১

পেটের মেদ কমানোর কিছু অভ্যাস

অনেকে মনে করতে পারেন সকালের খাওয়াটা বাদ দিলে পেটের মেদ কমে যেতে পারে। তবে বৈজ্ঞানিকভাবে প্রমাণিত যে সকালে ভালো মতো নাস্তা করলেও পেটের মেদ জমার সম্ভাবনা কমায়।

ওজন কমানো নিয়ে বিশেষত পেটের মেদ কমানোর ব্যাপারে ঝক্কি পোহাতে হয় কম বেশি সবাইকেই। সকালের কিছু ভালো অভ্যাস নিয়মিত চর্চা করার মাধ্যমে এই কাজ অনেকটাই সহজ হয়ে যায়।

স্বাস্থ্য-বিষয়ক একটি ওয়েবসাইটে প্রকাশিত প্রতিবেদন অনুযায়ী পেটের মেদ কমাতে সহায়ক এমন কয়েকটি করণীয় সম্পর্কে জানানো হল। 

সকালের শুরুতে এক গ্লাস পানি: ওজন কমাতে পানি পান আবশ্যক। ঘুম থেকে উঠে এক গ্লাস পানি পান করলে তা সারা রাত ঘুমের পরে শরীরের আর্দ্রতা বজায় রাখে ও বিপাক বাড়াতে সহায়াত করে। এটা ক্ষুধা নিয়ন্ত্রণ করে ও বাড়তি ক্যালরি গ্রহণের ঝুঁকি কমায়।

শরীরচর্চা: সকালে নাস্তার আগে অল্প ব্যায়াম করার অভ্যাস করুন। ‍বিশেষ করে খালি হাতের ব্যায়াম যা দেহের মধ্যবর্তী অঞ্চলে চাপ ফেলে। যেমন- উঠবশ, ‘পুশ-আপ’, ‘অ্যাবডোমিনাল ক্রাঞ্চেস’ ইত্যাদি। এসব ব্যায়াম পেটে জমে থাকা চর্বি দ্রুত ঝরায়।

প্রোবায়োটিক সাপ্লিমেন্ট: পেটের মেদ কমাতে অন্ত্রের সুস্থতারও প্রয়োজন রয়েছে। গবেষণা থেকে জানান যায়, ‘ল্যাকটব্যাসিলাস’ পরিবারের উপাদান পেটের মেদ ও ওজন কমাতে সহায়তা করে। এছাড়াও এটা হজমে সহায়তা করে এবং পেটের মেদ কমাতে ভূমিকা রাখে।

গ্রিন টি পান: পেটের মেদ কমাতে গ্রিন টি অনন্য। সকালে চা, কফির বদলে গ্রিন টি পান করুন। এটা ‘ক্যাটেকিন’ সমৃদ্ধ যা ক্ষতিকারক টক্সিন দূর করে ও শরীরকে চর্বি কমাতে সাহায্য করে। 

সকালে স্বাস্থ্যকর নাস্তা: ওজন কমানোর মূল চাবিকাঠি হল সকালে স্বাস্থ্যকর নাস্তা। এটা কোনভাবেই বাদ দেয়া না। নাস্তায় আঁশ ও প্রোটিন সমৃদ্ধ খাবার যোগ করুন। এতে ক্ষুধা মিটবে ও সারাদিনের জন্য প্রয়োজনীয় শক্তি পাওয়া যাবে। ফলে আজে বাজে খাবার খাওয়া ও ওজন বাড়ার ঝুঁকি অনেকটাই কমে যাবে।