মঙ্গলবার,

২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১,

১২ আশ্বিন ১৪২৮

পরীক্ষামূলক প্রকাশ

মঙ্গলবার,

২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১,

১২ আশ্বিন ১৪২৮

Radio Today News

ব্রিটিশ সিংহাসনের উত্তরাধিকারের তালিকা থেকে কেনো বাদ পড়লেন লিলিবেট?

ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক

প্রকাশিত: ২৩:১১, ১ আগস্ট ২০২১

আপডেট: ০৮:৫৪, ২ আগস্ট ২০২১

ব্রিটিশ সিংহাসনের উত্তরাধিকারের তালিকা থেকে কেনো বাদ পড়লেন লিলিবেট?

ব্রিটিশ রাজপরিবারের ওপর তীক্ষ্ণ নজর রাখেন এমন একজন যখন দেখলেন, রাজপরিবারের অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে দেয়া ব্রিটিশ সিংহাসনের উত্তরাধিকারের তালিকায় প্রিন্স হ্যারির মেয়ে লিলিবেট-এর নাম নেই, এর পরই বিষয়টি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়।

প্রশ্ন ওঠে, কেনো লিলিবেট বাদ পড়লেন? তার কি যোগ্যতা নেই? তাকে কি উত্তরাধিকারের তালিকা থেকে বাদ দেয়া হয়েছে?

এই বিতর্ক বোধগম্য কিন্তু একাডেমিক। সিংহাসনের উত্তরাধিকারের বিষয়টি নতুন করে প্রণয়ন বা আনুষ্ঠানিকভাবে কোনো ঘোষণা দেয়া হয়নি। কারণ এই তালিকায় প্রত্যেকের অবস্থান তার জন্মের সাথে স্বয়ংক্রিয়ভাবেই নির্ধারিত হয়।

লিলিবেটের জন্মের সাত সপ্তাহ পর গত সপ্তাহে রাজপরিবারের ওয়েবসাইট আপডেট করা হয়, যেখানে উত্তরাধিকারের তালিকার অষ্টম স্থানে তার নাম যোগ করা হয়। 

বেশ কয়েকটি ব্রিটিশ গণমাধ্যম রাজপ্রাসাদ বাকিংহাম প্যালেসের কাছে ব্যাখ্যা চায়, কেনো লিলিবেটের নাম এতদিন তালিকার বাইরে রাখা হয়েছিল? এর জবাবে রাজপ্রাসাদের একজন মুখপাত্র খুব সাধারণভাবে জানান, ওয়েবসাইটটি পর্যায়ক্রমে হালনাগাদ করা হয়।

হাল আমলের ওয়েবসাইটের কথা না হয় বাদই থাক, জন্মের ভিত্তিতে নির্ধারিত এই উত্তরাধিকারের তালিকা পবিত্র ও অলঙ্ঘনীয়। এমনকি রানীও তাঁর উত্তরাধিকার কে হবেন তা নির্ধারণ করতে পারেন না।

সাংবিধানিক রাজতন্ত্রের মূলমন্ত্র এটা যে, রাষ্ট্রের প্রধান নির্বাচিত নন এবং এই প্রক্রিয়ায় নির্বাচনের মাধ্যমে রাষ্ট্রপ্রধান হবার রাজনৈতিক ভার এড়ানো হয়েছে।

ব্রিটেনের প্রজাতন্ত্রিরা বলে থাকেন, এই পদ্ধতি মৌলিকভাবে অগণতান্ত্রিক এবং এটা বাতিল করা উচিৎ। তবে এই মতবাদ বাস্তবায়নে তারা কখনই যথেষ্ট জনসমর্থন অর্জন করতে পারেননি।

চূড়ান্তভাবে, একমাত্র পার্লামেন্টেরই ক্ষমতা আছে রাজতন্ত্রের পরিবর্তে একজন প্রেসিডেন্টকে রাষ্ট্রপ্রধান করার। তবে এ বিষয়ে ব্রিটিশ পার্লামেন্ট ওয়েস্টমিনস্টারে কখনই গুরুতর কোনো বিতর্ক হয়নি। বিষয়টিতে রাজনীতিবিদদের মধ্যে মাঝে মাঝে যে বিতর্ক হয় তা হলো, যে পদ্ধতি চলছে আপনি যদি এমনটা উদ্ভাবন করতে না পারেন তাহলে এটা পরিবর্তন কেনো? 

বর্তমানে ব্রিটিশ রাজতন্ত্র কার্যকর থাকার বেশিরভাগ কৃতিত্ব রানী দ্বিতীয় এলিজাবেথের। দশকের পর দশক ধরে তিনি যে অবিচলভাবে তাঁর দায়িত্ব পালন করে যাচ্ছেন সেজন্য তিনি ব্রিটিশদের কাছে বিপুলভাবে সমাদৃত।

সময়ই বলে দেবে তাঁর ছেলে প্রিন্স চার্লসও একইরকম সম্মান পাবেন কি-না। অন্য একটি ধারনা নিয়েও বিতর্ক আছে, রানীর উচিৎ প্রিন্স চার্লসের পরিবর্তে অধিক জনপ্রিয় প্রিন্স উইলিয়ামের কাছে সরাসরি রাজ সিংহাসনের দায়িত্ব হস্তান্তর করা। 

সূত্র: সিএনএন।

রেডিওটুডে নিউজ/এইচবি/এসআই

সর্বশেষ

সর্বাধিক সবার কাছের