শুক্রবার,

৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২,

১৫ আশ্বিন ১৪২৯

শুক্রবার,

৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২,

১৫ আশ্বিন ১৪২৯

Radio Today News

বাবর-রিজওয়ানের দুর্দান্ত ব্যাটিংয়ে ইতিহাস গড়া জয় পাকিস্তানের

স্পোর্টস ডেস্ক

প্রকাশিত: ০০:৩১, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২২

বাবর-রিজওয়ানের দুর্দান্ত ব্যাটিংয়ে ইতিহাস গড়া জয় পাকিস্তানের

বাবর আজম ও মোহাম্মদ রিজওয়ানের ব্যাটিংয়ে ১০ উইকেটে জিতেছে পাকিস্তান

পাকিস্তানের বিপক্ষে টসে জিতে ব্যাটিং করার সিদ্ধান্ত নেয় ইংল্যান্ডের অধিনায়ক মঈন আলি। শুরু থেকে অবশ্য আক্রমণাত্মক ব্যাটিং করতে দেখা যায়নি ইংলিশ ওপেনারদের। ফিলিপ সল্ট এবং অ্যালেক্স হেলস মিলে এগিয়ে যেতে থাকেন ধীরগতিতে।  পাওয়ার প্লের শেষ ওভারে তাদের জুটি ভাঙেন দাহানি। ২৬ রান করে বিদায় নেন অ্যালেক্স হেলস।

পরের বলে আউট হয়ে যান ডেভিড মালান। দ্রুত দুই উইকেট হারিয়ে চাপে পড়ে ইংলিশরা, তবে সল্ট এবং বেন ডাকেটের ঝড়ো ব্যাটিংয়ে যেতে থাকে ইংলিশরা পাশাপাশি চাপ কাটিয়ে ওঠে তারা। যদিও ওয়ানডে মেজাজে ব্যাটিং করা সল্ট বিদায় নেন ২৭ বলে ৩০ রান করে। তবে অন্য প্রান্তে ২২ বলে ৪৩ রান করেন বেন ডাকেট।

আবারো দ্রুত দ্রুত উইকেট হারিয়ে চাপে পড়ে ইংলিশরা, তবে হ্যারি ব্রুক ১৯ বলে ৩১ রান করে সচল রাখেন রানের চাকা। ক্যাপটেন লিডিং ফ্রম দ্য ফ্রন্ট এর দারুণ এক উদাহরণ হয়ে দাঁড়ান এদিন মঈন আলি! 

তিনি ব্যাটিং চালান ঝড়ো গতিতে। তুলে নেন ক্যারিয়ারের ষষ্ঠ টি-টোয়েন্টি অর্ধশতক। মাত্র ২৩ বল ব্যাটিং করে চারটি ৪ এবং ৪ টি ছয়ে তার ইনিংস থামে ৫৫ রানে। শেষ পর্যন্ত পাঁচ উইকেটে ১৯৯ রান সংগ্রহ করে ইংলিশরা।পাকিস্তানের হয়ে দুটি করে উইকেট নেন হারিস রউফ এবং দাহানি।

লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে প্রথম দিকে ধীরগতিতে ব্যাটিং করতে থাকে পাকিস্তানের দুই ওপেনার মোহাম্মদ রিজওয়ান এবং বাবর আজম। প্রথমে তারা একটু সময় নিচ্ছিলেন পিচে সেট হওয়ার জন্য।

বিশেষ করে অধিনায়ক বাবর আজম প্রথম দিকে ব্যাটিং করেন ওয়ানডে মেজাজে। তবে দলের রানের চাকা ঠিক রাখেন  রিজওয়ান। দুজনে মিলে অর্ধশতকের পার্টনারশিপ গড়েন পাওয়ার প্লে শেষ হওয়ার আগেই।

তবে একটা সময় খোলস থেকে বের হতে শুরু করেন বাবর আজম। তাতে প্রেসার কমতে শুরু করে রেজওয়ানের ওপর থেকে। কিছুদিন আগেও অবস্থান ছিল র‍্যাংকিংয়ের সবার ওপরে, এতটা অধঃপতন হয়তো নিজেও মানতে পারছেন না। এক মাসের ব্যবধানে এক নাম্বার থেকে যে  নেমে গেছেন চান নাম্বারে সে কিভাবে মানবে? মানতে পারেননি বাবর আজমও।

দুজন ওপেন আরে পূর্ণ করেন আরো একটি অর্ধশতক। তবে অর্ধশতক পূর্ণ করার পর ঝড়ো গতিতে ব্যাটিং চালিয়ে যান বাবর! দুজনে কোনো উইকেট না হারিয়ে সেঞ্চুরি পার্টনারশিপ গড়েন, এরপর পুর্ন করেন দেড়শ রানের পার্টনারশিপ। তাতেও থামেন নি তারা।

বাবর আজম ৬২ বলে পুর্ন করেন টিটুয়েন্টি ক্যারিয়ারে ২য় শতক,। রিজওয়ান অবশ্য আর করতে পারেন নি, তবে অবিশ্বাস্য ১০ উইকেটের জয় ঠিকই এনে দিয়েছেন দল কে। অবিচ্ছিন্ন থেকেই মাঠ ছেড়েছেন দুজন। রিজওয়ান ৮৮ ও বাবর ১১০ রানে অপরাজিত ছিলেন। তাতে ইতিহাস গড়েছেন দুজন। ওপেনিং জুটিতে এটা ৫ম সর্বোচ্চ পার্টনারশিপ এবং লক্ষ্য তাড়া করতে গিয়ে ওপেনারদের মধ্যে সর্বোচ্চ।

তাতে ৭ ম্যাচ সিরিজে ১-১ এ সমতায় ফিরলো পাকিস্তান।

রেডিওটুডে নিউজ/এসবি

সর্বশেষ

সর্বাধিক সবার কাছের