রোববার,

২৭ নভেম্বর ২০২২,

১৩ অগ্রাহায়ণ ১৪২৯

রোববার,

২৭ নভেম্বর ২০২২,

১৩ অগ্রাহায়ণ ১৪২৯

Radio Today News

পরিবেশবান্ধব ও সৃষ্টিশীল উদ্দোক্তাদের সম্মাননা

রেডিওটুডে ডেস্ক

প্রকাশিত: ১৫:২০, ১৮ নভেম্বর ২০২২

আপডেট: ১৫:২১, ১৮ নভেম্বর ২০২২

পরিবেশবান্ধব ও সৃষ্টিশীল উদ্দোক্তাদের সম্মাননা

সংগৃহিত ছবি

পুরোদমে চলছে বিজিএমইএ’র ‘মেড ইন বাংলাদেশ’ সপ্তাহ। বাংলাদেশে তৈরি টেক্সটাইল-এর সপ্তাহব্যাপী এ উদযাপনের সাফল্যে নতুন মাত্রা যোগ করেছে ১৭ নভেম্বর, ২০২২ অনুষ্ঠিত সাসটেইনেবিলিটি লিডারশিপ অ্যাওয়ার্ড (এসএলএ)। বিজিএমইএ এবং জার্মান উন্নয়ন সংস্থা (জিআইজেড) জিএমবিএইচ যৌথভাবে এই পুরষ্কারের আয়োজন করেছে।     

এই অনুষ্ঠানে দেশের সরকারি-বেসরকারি পর্যায়ের প্রতিনিধিদের পাশাপাশি,  কারখানা এবং ব্র্যান্ড প্রতিনিধি, বিভিন্ন সংস্থা ও সংঘ, এবং একাডেমিক ও আন্তর্জাতিক উন্নয়ন সংস্থার প্রতিনিধিবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন বসুন্ধরা কনভেনশন সেন্টারে । অনুষ্ঠানে ১৮টি বিভাগে বিজয়ীদের মধ্যে পুরষ্কার দেয়া হয়।  সামাজিক এবং পরিবেশগত স্থায়িত্ব, পাশাপাশি বাংলাদেশের টেক্সটাইল সেক্টরে উদ্ভাবনী অনুশীলন ও কর্মকান্ডের জন্য পোশাক খাতের এই প্রতিষ্ঠানগুলোকে সম্মানিত করা হয়।   

পুরষ্কারগুলি তিনটি শ্রেণীতে ভাগ করা হয়েছে। সামাজিক প্রতিপালন, পরিবেশগত উৎকর্ষতা, এবং উদ্ভাবনী শ্রেষ্ঠত্ব-  এই তিনটি শ্রেণীর অধীনে নয়টি উপ-বিভাগে পুরষ্কারগুলো প্রদান করা হয়।

‘সোশ্যাল কমপ্লায়েন্স’বা সামাজিক প্রতিপালন ক্যাটাগরিতে বিজয়ীদের মধ্যে রয়েছে- কর্মক্ষেত্রে নারীর ক্ষমতায়নে শ্রেষ্ঠত্ব, কারখানার আশেপাশে সামাজিক উদ্যোগ এবং সামাজিক শৃংখলা। কারখানাগুলি 'পরিবেশগত উৎকর্ষতা' ক্যাটাগরিতে এর পানির ব্যবহার, টেক্সটাইল বর্জ্য পদার্থের পুনর্ব্যবহার বা সামগ্রিক পরিবেশগত বিন্যাসে নেতৃত্ব দেয়াকে প্রাধান্য দিয়েছে। এছাড়াও, উদ্ভাবনী তথা নতুন নতুন ব্যবহারের দিকে যেসব ফ্যাক্টরি  প্রাধান্য দিয়েছে তাদেরও পুরস্কৃত করা হয়েছে। অন্যান্য বিভাগগুলোর মধ্যে ব্যবসার সৃষ্টিশীল উন্নয়ন, কর্মীদের কল্যাণ এবং ভবিষ্যতের সুরক্ষা বিষয়সমূহ আলোচনায় এসেছে ও উল্লেখ করে ক্যাটাগরাইজ করা হয়েছে।    

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মাননীয় স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী এমপি, জাতীয় সংসদ। তিনি বলেন, বিজিএমইএ এর সভাপতি জনাব ফারুক হাসান তার বক্তব্যে বলেন, ''কর্মক্ষেত্রে নিরাপত্তা এবং আরএমজি শিল্পে টেকসইতার ক্ষেত্রে নেতৃত্বের ভূমিকার জন্য বাংলাদেশ এখন বিশ্বব্যাপী প্রশংসিত। আমরা গর্বিত যে বিশ্বের সর্বোচ্চ সংখ্যক LEED প্রত্যয়িত সবুজ গার্মেন্টস কারখানা বাংলাদেশ এই আছে। আমরা বাংলাদেশের আরএমজি শিল্পে টেকসইতা বৃদ্ধির জন্য এবং এই খাতটিকে একটি নতুন উচ্চতায় নিয়ে যাওয়ার জন্য সম্ভাব্য সব ধরনের প্রচেষ্টা করতে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। আমি বিশ্বাস করি যে সাসটেইনেবিলিটি লিডারশিপ (টিএসএল) অ্যাওয়ার্ড পরিবেশগত, সামাজিক এবং উদ্ভাবনের ক্ষেত্রে বাংলাদেশের পোশাক কারখানার সর্বোত্তম অনুশীলনকে স্বীকৃতি দেয়ার পাশাপাশি এই ব্যাপারে অগ্রসর হতে অনুপ্রানিত করবে এবং বিশ্ববাজারে মেড ইন বাংলাদেশের ভাবমূর্তিকে আধুনিক, সবুজ ও নিরাপদ হিসেবে শক্তিশালী করবে‘।  

জিআইজেড টেক্সটাইল ক্লাস্টারের প্রোজেক্ট ম্যানেজার ডঃ মাইকেল ক্লদ, টেক্সটাইল সেক্টরের স্টেকহোল্ডারদের যৌথ সাফল্যের জন্য সাধুবাদ জানান এবং বাংলাদেশে টেকসই অনুশীলন প্রতিষ্ঠার জন্য জার্মান উন্নয়ন সহযোগিতার প্রতিশ্রুতির কথা তুলে ধরে তিনি বলেন, ‘জার্মানি, ইউরোপিয়ান ইউনিয়ন (ইইউ)-তে বাংলাদেশের তৈরি টেক্সটাইল আমদানিকারক দেশ হিসেবে ১ নম্বরে রয়েছে, আমাদের অংশীদারদের পাশাপাশি ফ্যাক্টরিগুলোর সাথে আমরা এ পথ চলমান রাখতে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। এখানে এই ফ্যাক্টরি গুলোর মধ্যে অনেকেই আজ রাতে উপস্থিত রয়েছে। আমাদের টিএসএল পুরস্কার বিজয়ীরা, সমৃদ্ধিশীল সেক্টরের অগ্রগামীরা এভাবেই চলার পথকে আলোকিত করে চলুক’।

রেডিওটুডে নিউজ/এসবি

সর্বশেষ

সর্বাধিক সবার কাছের